Shamayita Chakraborty, momo, মোমো

মোমো-চিত্তে

ভোরের দার্জিলিং তখনো অর্ধেক ডুবে ঘুমজলে।
গুমগুম শব্দ করে টয় ট্রেনটা বাতাসিয়া লুপ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর কুয়াশাঘেরা ছোট্ট চত্বরটায় হঠাত্‍ দেখলাম এক নেপালি বুড়ি সামনে গোল স্টিলের মুখ বন্ধ একটা বড় পাত্র নিয়ে বসে আছেন। তাঁকে ঘিরে কিছু হাটুরে মানুষ। স্বাভাবিক কৌতূহলে বাবা, এবং তাঁর সঙ্গে পুঁচকি আমি এগিয়ে গেলাম কী ঘটছে দেখার জন্য। বুড়ি পাত্রের ঢাকনা তুলতে দেখা গেল ধোঁয়ার আস্তরণের মধ্যে সাদা সাদা পুলি পিঠে জাতীয় কিছু একটা জিনিস। শালপাতায় মুড়ে সে রকম কয়েকটা পুলি আর লালচে লঙ্কার দানাওয়ালা একটা সস, সঙ্গে ধোঁয়া ওঠা স্যুপের বাটি। জিনিসটা একবার চেখে দেখার জন্য বাবাও নিলেন এক প্লেট। ভাগ বসাতে গিয়ে কামড় দিয়েই বুঝলাম, এ সব জিনিস স্বর্গের দেবতাদের জন্যই তৈরি হয়ে থাকে মাঝে মাঝে। সালটা ১৯৯৩, আমার বয়স তখন দশ। আর আমার মোমো-প্রেমের সূত্রপাতও তখন থেকেই।

মোমো ইতিহাস সূত্রে চৈনিক খাবার। চিনা নাম জিয়াওজি। স্টার্টার হিসেবে 'ডিমসাম' বা এক কামড়ে কপ করে খেয়ে ফেলার জন্যই এর প্রসিদ্ধি। মোমো শব্দটা চিন থেকে ধার নিয়েছে নেপালিরা। এখন সারা বিশ্বে তিব্বতি ও নেপালি ডেলিকেসি হিসেবেই এর খ্যাতি। কলকাতায় মোমো প্রচার পেয়েছে বহু পরে। এখন অবশ্য পাড়ার মোড়ে রোলের সঙ্গে মোমোর হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। কলকাতার এলগিন রোডে পাশাপাশি তিনখানা দোকান: 'হামরো মোমো', 'মোমো প্লাজা' আর 'অর্কিড'। এদের মধ্যে হামরো মোমোই সম্ভবত সবথেকে পুরোনো। নব্বইয়ের গোড়ায় এর পত্তন। এদের পাশে রেখে এলগিন রোড পেরিয়ে চৌরঙ্গী রোড থেকে স্যাঁতস্যাঁতে গলি দিয়ে ভেতরে ঢুকে ‘টিবেটান ডিলাইটস’-এর কথা না বললে বড়সড় গুনাহ্ হয়ে যাবে! তিব্বতিরাই এই মোমো বিপণির কর্ণধার। এঁরা মোমোর সঙ্গে দেয় একটা উৎকট ঝাল সস। মোমোর বিশেষ সস শুনেছি চিনে টমেটো আর তিমুর নামে সেজওয়ান প্রদেশের এক কুখ্যাত ঝাল লঙ্কা জ্বাল দিয়ে তৈরি করা হত। ‘টিবেটিয়ান ডিলাইটস’-এর এই সসে যে ধানি লঙ্কার একটা বিশেষ ভূমিকা আছে সে ব্যাপারে আমি নিশ্চিত। একটা নাম-না-জানা দোকান ছিল পূর্ণদাস রোডের দোতলা বাড়ির সিঁড়ির তলায়। প্রথম বার যাই ক্লাস ইলেভেনে, স্কুল পালিয়ে। এমন পকেটোপযোগী অথচ স্বাদ-সমুদ্রে ডুব মারার ঘটনা আমার জীবনে খুব একটা ঘটেনি। গতবার কলকাতা ফিরে দেখলাম সে দোকানের ঝাঁপ নেমে গিয়েছে, চিরতরে। আমার ইস্কুল জীবনে এটা একটা হারানো সুর হয়ে থাকবে।
এ সব ছাড়া রবীন্দ্র সদন স্টেশনের চারপাশে চারখানা স্টল আছে রাস্তার ওপরেই। আরেকটা আছে অ্যাকাডেমির সামনে, যাদের মোমো অতি উত্তম। তবে টালিগঞ্জ মেট্রো স্টেশনে ঢোকার মুখে এক মধ্যবয়স্ক ভদ্রলোক আজকাল ডেকচি নিয়ে বসছেন। ওনার চিকেন মোমোয় কামড় বসিয়ে পুরটাকে জিভের ভেতর নিয়ে আলতো খেলালে মাঝে মাঝে মাথার ভেতর বাতাসিয়ার পাইন গাছগুলোর ঝাপটা এখনও পাওয়া যায়। তাঁর কাছ থেকেই জেনেছি, ওই অদ্ভুত স্যুপ তৈরির কলাকৌশল। কে বলবে চিকেনটাকে সেদ্ধ করার পর সেই জলেই বাঁধাকপি গাজর কাঁচালঙ্কা এবং কদাচিত্‍ ধনেপাতার টুকরো মিশিয়ে ফেলেই তৈরি করে ফেলা যায় ও জিনিস! শূন্য থেকে ব্রহ্মের উত্পত্তি বিষয়ে ভারতীয় দর্শনের যাবতীয় কুটকচালি হার মেনে যেতে বাধ্য চিকেনসেদ্ধ জল থেকে এমন ব্রহ্মভোগ্য স্যুপ তৈরির প্রক্রিয়ার কাছে।

এ বিষয়ে মনে রাখা ভাল যে, মোমো বলতে এই অধম স্টিমড মোমোই বোঝে। আর তার মধ্যেও ভেজিটেবল মোমো দেখলে বলে ‘সাইডে বোসো’। মৌলবাদের অভিযোগ উঠতে বাধ্য। সে টুকু রিস্ক নিয়েও বলতে বাধ্য হচ্ছি যে, মাংসের পুর ছাড়া মোমো হল মিছিল বাদ দিয়ে কলকাতা বা হ্যামলেটকে বাদ দিয়ে ডেনমার্কের রাজপুত্র; আর তেলেভাজা-রোল-প্রিয় বাঙালির হাতে পড়ে সেদ্ধ মোমোর ডালডা-লাঞ্ছিত চেহারা মেনে নেওয়ার কোনও প্রশ্নই ওঠে না। আর সেদ্ধ মোমোকে স্বাদু করবার জন্যই তো স্যুপ! এক একবার কামড়ের সাথে সাথে চিকেন বা পর্কের পুরটাকে ভিজিয়ে দিতে হয় স্যুপের অতলে। দামও অন্যান্য খাবারের তুলনায় যথেষ্ট কম। পেট ভরানোর পক্ষে যথেষ্ট। সেই সঙ্গে কাঁচুমাচু মুখে আরেক বাটি স্যুপ চাইলে ভুরু না কুঁচকেই বিনা বাক্যব্যয়ে ভরে যায় বাটি। আর কী চাই?

এরপরেও কোনও না-লায়েক, বেরসিক মোমো নিয়ে অভিযোগ তুললে খোদাতালার দরবারে রোজ কেয়ামতের দিন তার যে ফুটন্ত তেলের কড়াইতে ভাজা হওয়া বাঁধা, এ ব্যাপারে আমি নিশ্চিত।

শময়িতা চক্রবর্তী
Your Comments

kobir hossain: dharmo ke keno bare bare jiboner sathe ashte prishte bandhte chan. sadamata sahaj hiseb kore otha etotai ki dushkar. khub sadharan sahaj anabil ekta lekha ke khamokha moulobader ghanoghatay mishie felben na plz...asha kori amar comment take anadhikar charcha hisebe neben na..

  Post CommentsX  

kobir hossain: dharmo ke keno bare bare jiboner sathe ashte prishte bandhte chan. sadamata sahaj hiseb kore otha etotai ki dushkar. khub sadharan sahaj anabil ekta lekha ke khamokha moulobader ghanoghatay mishie felben na plz...asha kori amar comment take anadhikar charcha hisebe neben na..

  Post CommentsX  

kobir hossain: dharmo ke keno bare bare jiboner sathe ashte prishte bandhte chan. sadamata sahaj hiseb kore otha etotai ki dushkar. khub sadharan sahaj anabil ekta lekha ke khamokha moulobader ghanoghatay mishie felben na plz...asha kori amar comment take anadhikar charcha hisebe neben na..

  Post CommentsX  

কবির হোসেন,
এই ব্লগটি অত্যন্ত হালকা মেজাজে লেখা নিছকই রসিকতা। কোনও ধর্মকে নির্দিষ্ট করে এই লেখার সাথে যোগাযযোগ ঘটানোর কোনও অভিপ্রায় আমার নেই। শেষ লাইনট বদলে গিয়ে যিশূর দরবারে judgement day অথবা ভগবানের দরবারে শেষ বিচার বসিয়ে নেওয়া যেতে পারে যে কোনও সময়। আপনার খারাপ লাগায় আমি অত্যন্ত দুঃখিত। অনুরোধ, লেখাট নিছক মজার মেজাজেই পড়বেন। কাউকে আঘাত করা আমার উদ্দেশ্য ছিলও না।

  Post CommentsX  

momo momo momo সুন্দরী মম...

  Post CommentsX  

wonderful!!!!!!!!

  Post CommentsX  

its a very interresting read your ``momo`` but why are mixed up food with religoin . iam very hearted , when im reading last two line your momo, if you would not mind plz reply me? its came from as a wide minded indian or a typical brambhan? plz reply me?

  Post CommentsX  

dear sudipta sengupta, in today`s ``apnar rai`` you have correctly replied to a caller who intentionally wanted to denounce your channel. i am happy with your reply. thanks

  Post CommentsX  

khub akta valo lage ni.

  Post CommentsX  

জানি না মোমোয়িতা তোমার বিয়ে হয়েছে কি না। না হলে মোমো-ডোরে আমাদের বাঁধা পোড়লে ক্ষতি হোতো না। তোমার লেখা পড়তে পড়তে জিভে জল এসে গেল।সত্যি মোমো চিত্তে নৃত্ত জাগায়। মনে পড়ে গেল সেই নেপালী সুন্দরীদের হাতের তৈরী মোমো আর সুপ। আহ,........সত্যি দেবতাদের আহার। আর সেই মোমো ও নুডল সুপ এর দৌলতে সিকিম-দার্জিলিং এ গেলে দেবতা হওয়ার সুযোগ পাওয়া যায় কিছুদিনের জন্য। -মোমোয় বোলপুর, বীরভুম

  Post CommentsX  

জানি না মোমোয়িতা তোমার বিয়ে হয়েছে কি না। না হলে মোমো-ডোরে আমাদের বাঁধা পোড়লে ক্ষতি হোতো না। তোমার লেখা পড়তে পড়তে জিভে জল এসে গেল।সত্যি মোমো চিত্তে নৃত্ত জাগায়। মনে পড়ে গেল সেই নেপালী সুন্দরীদের হাতের তৈরী মোমো আর সুপ। আহ,........সত্যি দেবতাদের আহার। আর সেই মোমো ও নুডল সুপ এর দৌলতে সিকিম-দার্জিলিং এ গেলে দেবতা হওয়ার সুযোগ পাওয়া যায় কিছুদিনের জন্য। -মোমোয় বোলপুর, বীরভুম

  Post CommentsX  

i request 24 ghanta to cover issues like iilegal club/thek and illegal activities carried thereat. i know one such location . it comes under the purview of ward 130 (behala west). name of the councilor is sri avijit mukherjee aitmc. that place is just stone throwing distance from his home. matter has been reported to him by residents residing around that thek. but no action is being taken. to be very precise that place is very near to syhama sundari bidyapith. activities carried on are drinking, smoking ganja, shouting, playing carrom, electric connection being taken from light post illegally etc.all this continues uptp 1am t0 2 mm people are just fed up. in fact road could not be pitched because of existence of illegal thek . for fear anonymous letters were written to behala police , honourable cm of west bengal, police commissioner, mla partho chatterjee. all efforts are in vain. i am unable to disclose my identity because of fear.

  Post CommentsX  

bardhhaman er raina i trinamool er okothya atyachar cholche. tara aaj jehetu haatbaar thik koreche j cpim barir kono manush k dekhlei mere felbe. amar dada okhankar lcs, take ebong ro 57 jon k mithye case e frame kora hochche. policemontrir posha police ei kaje trinamool k shomorthon korche.amar jini choto dada tar ekta rong er dokan ache raina bazar e. shey konodin politics koreni. ekhuni khobor pelam j take trinamooli ra bedhorok mardhor kore dokan bhenge diyeche.achcha amra kon prithibi te baash korchi?erii naam gonotontro? aapnara ki amader ektu o shahajjo korte parben na? ei ghotona ki manusher kache pouchanor moto noy? ekta gram e koekta shadharon manush k j bhabe nirjaton korche trinomool etar jonno oder ki kono shasti hobe na?

  Post CommentsX  

`rupu`র blog-এর বক্তব্যের সাথে সম্পূর্ণ একমত হয়ে আমি বলতে চাই কী রাজ্য,কী দেশ বা কী বিদেশ সব ক্ষেত্রেই সংকটকালের মধ্যে দিন কাটছে।জনমতকে ঠিক পথে পরিচালনার জন্য অঞ্জনবাবু বা সুদীপ্তবাবুর মত আদর্শবান সাংবাদিকদের সমকালীন রাজনৈতিক বা অর্থনৈতিক বিষয়ে editorial পড়তে চাই। কিন্তু অঞ্জনবাবুর লেখা পড়েছি ৩০.৯. তারিখের (`সুখ নেইকো মনে`) আর সুদীপ্তবাবুর ৮.১০. তারিখের (`প্রযুক্তির মহানায়ক`)।যোগ্যস্থানে আমার চাহিদা হয়ত বিবেচিত হবে।

  Post CommentsX  

24 ghanta k donyobad sundarban sonondhe amader oakibohal rakhar jonno.

  Post CommentsX  

`ভোট ফর সুন্দরবন` প্রতিবেদন পড়লাম,ভোট দিতেও চাই, কিন্তু web site-এর উল্লেখ না থাকায় ভোট দিতে পারলাম না। জানিনা সময় এখনো আছে কিনা,থাকলে web site-টা screen-এ দয়া করে দিন।

  Post CommentsX  

khub baje laglo .

  Post CommentsX  

gorib manusher hoea kotha bole 24ghanta, tai amar kotogulo dabi 24ghantar kache 1. chasira daam pacche na ta niea special news kora uchit. baddhohocche sucide korte. 3-4 koti manush khoti grostho 2. pass fail niea alochona kora uchit. lokho lokho chalea maear bhobiswat er baper 3. class v e bhortir ki hobe tar alochona kora uchit. 4. lokho lokho chele maea school service er dike takiea thake, tar ki hobe ta niea alochona kora uchit. 5. zilar khobor aro besi deba uchit, sudhu kolkatar khobor na. 6. pathoker motamot gurutto diea bibechona kora uchit. 7. ei website tar sombondhe ebar bolchi, khobor boddo kom, besi kore khobor deba uchit.

  Post CommentsX  

dharwd







strength is life
viknes is death

  Post CommentsX  

khub bhalo laglo

  Post CommentsX  
Post Comments