শুরু থেকে শেষ, শাহরুখময় হয়ে উঠল কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

প্রদীপ জ্বলল, জ্বলল হাজার আলো, শুক্রবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামের তারকাখচিত মঞ্চে সূচনা হল ২৩তম কলকাতা চলচ্চিত্র উত্সবের। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টলিউড- বলিউডের তামাম তারকা। অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে কাজল, কমল হাসান, মহেশ ভট্ট, ব্রিটিশ চলচ্চিত্রকার মাইকেল উইন্টারবটম। ছিলেন টলিউডের কুশীলবরাও। তবু অনুষ্ঠানের শুরু থেকে শেষ যেন হয়ে রইল শাহরুখময়।  

Updated: Nov 10, 2017, 10:17 PM IST
শুরু থেকে শেষ,  শাহরুখময় হয়ে উঠল কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিবেদন : প্রদীপ জ্বলল, জ্বলল হাজার আলো, শুক্রবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামের তারকাখচিত মঞ্চে সূচনা হল ২৩তম কলকাতা চলচ্চিত্র উত্সবের। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টলিউড- বলিউডের তামাম তারকা। অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে কাজল, কমল হাসান, মহেশ ভট্ট, ব্রিটিশ চলচ্চিত্রকার মাইকেল উইন্টারবটম। ছিলেন টলিউডের কুশীলবরাও। তবু অনুষ্ঠানের শুরু থেকে শেষ যেন হয়ে রইল শাহরুখময়।  

গেট পাস নিয়ে নেতাজি ইন্ডোরের বাইরে উপচে পড়া ভিড়। তিল ধারণের জায়গা নেই। বাদশাকে একটিবার দেখার অপেক্ষায় বাইরে উন্মুখ জনতা। সঙ্গে বাড়তি পাওনা কাজল। অনুষ্ঠনে শাহরুখ ঢোকা থেকে জনতাকে হাত নাড়ানো, সবেতেই উত্তাল হল দর্শকাসন। 'শাহরুখ, শাহরুখ' ধ্বনিতে ভরে উঠল নেতাজি ইন্ডোর। গোটা অনুষ্ঠানে শাহরুখেই মুগ্ধ, মগ্ন, মাতোয়ারা রইল কলকাতা।

ভাঙা বাংলায় কয়েক লাইন দিয়ে শাহরুখ যখন বক্তব্য শুরু করলেন, করতালিতে মুখরিত হল মঞ্চও। শাহরুখ বের হতেই গোটা অনুষ্ঠানে যেন বিষাদের ছায়া। অনেকটা ফাঁকা হয়ে গেল অনুষ্ঠান মঞ্চও। বাদশায় ক্যারিশমায় কাহিল যে সেলিব্রেটিরাও। 

খোদ মুখ্যমন্ত্রীও বললেন ''শাহরুখ-কাজলের বাজিগর  সিনেমা আমার ভালো লাগে।'' শাহরুখ পরের বার ধুতি পাঞ্জাবি পরে আসার কথা দিলে মমতা 'দিদি'ও ভাইকে ধুতি পাঞ্জাবি উপহার দেওয়ার কথা জানালেন। 

বক্তব্য রাখতে উঠে কাজলের মুখেও শোনা গেল বাংলা। বললেন, ''আমি বাংলাকে ভীষণ ভালোবাসি।'' এদিন বাংলাকে সংস্কৃতির পৃষ্ঠভূমি বলে উল্লেখ করেন। কাজলেও ঘরের মেয়ে বলে সম্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

পাশাপাশি এদিন বক্তব্য রাখতে উঠে মুগ্ধ করলেন বাংলার জামাই অমিতাভ বচ্চন। তাঁর বক্তব্যে উঠে এল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, হেমন্ত মুখোপাধ্যায়, সলিল চৌধুরী, সচিনদেব বর্মন, তরুণ মজুমদারদের নাম।

 

একে একে বক্তব্য রাখলেন মহেশ ভট্ট, কমল হাসন সকলেই। সিনেমায় বাকস্বাধীনতার পক্ষে সওয়াল করলেন মহেশ ভাট। ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্যোগকে স্বাগত জানালেন কমল হাসানও। ২৩তম চলচ্চিত্র উৎসবে ১৪২টি সিনেমা দেখানোর কথা রয়েছে। উত্সব চলবে ১৭ নভেম্বর।