বিশ বছর আগে হারিয়েছে অপুর সংসারের চিত্রনাট্যও: সন্দীপ রায়

শুধু পথের পাঁচালী নয়। সত্যজিত রায়ের আরও এক কালজয়ী চলচ্চিত্র অপুর সংসারের চিত্রনাট্যটিও খোয়া গিয়েছে, তাও বিশ বছর আগে। এমনই জানিয়েছেন খোদ সত্যজিৎ পুত্র পরিচালক সন্দীপ রায়। পৃথিবীর বৃহত্তম চলচ্চিত্র আর্কাইভ প্যারিসের সিনেমাটিক ফ্রান্সিসেই রাখা ছিল মূল্যবান অপুর সংসারের চিত্রনাট্য। দু`দিন আগেই পথের পাঁচালীর চিত্রনাট্যর প্রথম কপি ও সত্যজিত রায়ের নিজের হাতে আঁকা কিছু ছবি প্যারিস থেকে খোয়া যাওয়ার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। অপুর সংসারের চিত্রনাট্য খোয়া যাওয়ার খবরে পশ্ন উঠতে শুরু করেছে বিদেশি ওই সংগ্রহশালার ঔদাসীন্য নিয়ে। সেইসঙ্গে আরও গুরুতর হতে শুরু করেছে বিতর্ক।

Updated: Dec 9, 2012, 08:57 PM IST

শুধু পথের পাঁচালী নয়। সত্যজিত রায়ের আরও এক কালজয়ী চলচ্চিত্র অপুর সংসারের চিত্রনাট্যটিও খোয়া গিয়েছে, তাও বিশ বছর আগে। এমনই জানিয়েছেন খোদ সত্যজিৎ পুত্র পরিচালক সন্দীপ রায়। পৃথিবীর বৃহত্তম চলচ্চিত্র আর্কাইভ প্যারিসের সিনেমাটিক ফ্রান্সিসেই রাখা ছিল মূল্যবান অপুর সংসারের চিত্রনাট্য। দু`দিন আগেই পথের পাঁচালীর চিত্রনাট্যর প্রথম কপি ও সত্যজিত রায়ের নিজের হাতে আঁকা কিছু ছবি প্যারিস থেকে খোয়া যাওয়ার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। অপুর সংসারের চিত্রনাট্য খোয়া যাওয়ার খবরে পশ্ন উঠতে শুরু করেছে বিদেশি ওই সংগ্রহশালার ঔদাসীন্য নিয়ে। সেইসঙ্গে আরও গুরুতর হতে শুরু করেছে বিতর্ক।
সন্দীপ রায়ের কথায় প্রায় দু`দশক আগে পথের পাঁচালীর প্রথম চিত্রনাট্যের প্রথম কপির সঙ্গেই হারিয়ে যায় অপুর সংসারের চিত্রনাট্যটি। সন্দীপ রায় জানিয়েছেন, "আমরা বিশ্বাসই করতে পারিনি। সিনেমাটিক ফ্রান্সিসেতে থেকে শুধু পথের পাঁচালীর চিত্রনাট্যই নয়, অপুর সংসারের দ্বিতীয় চিত্রনাট্যটিও খোয়া যায়।" কীভাবে সন্দীপ এই দুঃসংবাদটি পেয়েছিলেন, সেকথাও জানিয়েছেন। তিনি বলেন,"২০ বছর আগে আমি বাবার চিত্রনাট্যগুলি সম্পর্কে সিনেমাটিক ফ্রান্সিসের কাছে জানতে চাই। আমাকে জানানো হয় পথের পাঁচালী ও অপুর সংসারের চিত্রনাট্য দুটি খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।" তবে কি এই ঘটনা ওই বিদেশি সংগ্রহশালার তরফে তাঁকে জানানোর প্রয়োজন মনে করা হয়নি? সন্দীপের দাবি, তিনি চিঠি না লিখলে মূল্যবান নথি দুটি হারিয়ে যাওয়ার বিষয়ে জানাই যেত না। "সেই সময় আমি তাঁদের ঔদাসীন্য বুঝতে পারিনি। এখনও বাবার ছিবিগুলি সেদেশের মানুষের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়। ওনার কাজ সম্পর্কে তাঁরা কীভাবে এতটা অনুভূতিহীন হতে পারেন?" প্রশ্ন তুলেছেন সন্দীপ রায়।
সন্দীপ যে সময়ের কথা বলছেন, সত্যজিত রায় তখনও জীবিত। পথের পাঁচালী ও অপুর সংসারের মতো ছবির চিত্রনাট্য হারিয়ে যাওয়ার কথাটা পরিচালক সত্যজিতকে জানানোর সাহস করে উঠতে পারেননি সন্দীপ। তাঁর কথায়,"আমাদের সাহস ছিল না। বিষয়টি তাঁকে না জানানোই ভাল বলে ঠিক করি আমরা।" একথা অনস্বীকার্য, খবরটি কানে পৌছলে তিনি মর্মাহত হতেন। সেকথা স্বীকারও করে নিয়েছেন সন্দীপ।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close