দিল্লির গণধর্ষণ: ক্ষোভের আগুন বলিউডেও

Last Updated: Wednesday, December 19, 2012 - 20:43

দিল্লির গণধর্ষণ নিয়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে গোটা দেশ জুড়ে। প্রতিবাদে সামিল হয়েছে বলিউডও। সংবাদমাধ্যম, টুইটার, ফেসবুকের মাধ্যমে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছেন অমিতাভ বচ্চন, শাহরুখ খান, করিনা কপুররা।
বুধবার সকালে পরপর তিনটি টুইটে শাহরুখ লিখেছেন, "আমরা এই নৃশংস ঘটনাটাকে কখনই একা দায়ী করতে পারি না। সারা বিশ্বেই পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। এর জন্য আমরাই দায়ী। আমরা যদি সঠিক সময় দোষীদের শাস্তি দিতে না পারি তাহলে আমাদেরই শাস্তি পাওয়া উচিত। খুব তাড়াতাড়ি। এই ধরণের অমানবিক অপরাধ আমাদের ঘরে পৌঁছনোর আগেই"।

শাহরুখের মতোই একাধিক টুইট করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অমিতাভ বচ্চনও। পরপর সাতটি টুইটে অমিতাভ লিখেছেন, আমি অনেক কিছুই বলতে চেয়েছিলাম কিন্তু গণধর্ষণের ঘটনা নিয়ে সত্যিই খুব বিবৃত। এটা একটা ক্ষমাহীন অপরাধ। এইসব ইস্যু নিয়ে যদি মুখ খুলি তাহলে সবাই বলে শুধু বলে কী হবে? কাজে কিছুই হয় না। আর কিছু না বললে বলা হয়, আপনি কখনই কিছু বলেন না। বিচারব্যবস্থা, আইনকানুন সবকিছুর অবনতি হচ্ছে। আমাদের আগের প্রজন্ম নিশ্চয়ই এই স্বাধীনতার জন্য লড়াই করেনি। ধর্ষণের বিচার না হলে অনেক কথা আলোচনা হবে। শাস্তির ক্ষেত্রে কঠোর হতে হবে। দুর্গা, কালী, লক্ষ্মী সবাই দেবী। আমরা তাদের আরাধনা করি। শ্রদ্ধা করি। মহিলাদের শ্রদ্ধা করা উচিত। জনসমক্ষে আমি এই ঘটনা নিয়ে আলোচনা করতে চাই না। পশুরাও এরকম আচরণ করবে না। অনেক হয়েছে! আমি আর কিছু বলতে পারছি না।

আটান্ন তম ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডের ঘোষণা উপলক্ষে বুধবার দিল্লিতে গিয়েছিলেন করিনা কপুর। গণধর্ষণ প্রসঙ্গে করিনা বলেন, "যা হয়েছে সেটা কখনই হওয়া উচিত ছিল না। আমাদের দেশে সব ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর আমরা সচেতন হই। আমাদের দেশে বিচার পাওয়া সত্যিই সময় সাপেক্ষ। দেশের আইন নতুন করে তৈরি হোক। বিচার তাড়াতাড়ি হওয়া প্রয়োজন। আমি আজই পড়লাম অন্তত চল্লিশটা ধর্ষণের ঘটনা এখনও বিচারের অপেক্ষায় রয়েছে। একজন মহিলার রাতে একা বেরনো উচিত নয় বলে দিলেই সমস্যার সমাধান হবে না। একজন আধুনিক মহিলা হিসেবে আমি কখনই সেটা সমর্থন করি না। আমি লেটনাইট পার্টি পছন্দ করি। দিল্লির মতো বড় শহরে এরকম ঘটনা সত্যিই লজ্জাজনক। আমাদের দেশের ছোট শহরে এরকম অনেক ঘটনাই ঘটে যা আমরা জানতেও পারি না।
অমিতাভ, শাহরুখ, করিনার পাশাপাশি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সলমন খান, ফারহান আখতার ও সানিয়ে মির্জাও।



First Published: Wednesday, December 19, 2012 - 20:43


comments powered by Disqus