জিরো ফিগারের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে বলিউডের পাঁচ পৃথুলা

Last Updated: Thursday, January 16, 2014 - 19:47

বলিউডে যখন সাইজ জিরো না হলে কাজ মেলাই দুষ্কর, তখনই হঠাত্ আশা জুগিয়েছিলেন ডার্টি সিল্ক। সিল্কের কার্ভস দেখে বুকে বল পেয়েছিলেন একদল পৃথুলা। তারপর থেকেই বলউডে এখন রাজ করছেন তাঁরাই। প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, দীপিকা পাডুকোনের মতো পারফেক্ট ফিগারের সঙ্গে সমানে তাল মেলাচ্ছেন সোনাক্ষি সিনহা, পরিনীতি চোপড়া, হুমা কুরেশিরা।

বিদ্যা বালন-তবে এই ব্রিগেডের পথপ্রদর্শক অবশ্যই বিদ্যা। ডার্টি পিকচারের আগেও বিদ্যার শারীরিক গঠন কখনই নায়িকাসুলভ ছিল না। সুন্দর মুখ আর বুদ্ধিদীপ্ত অভিনয়েই পরিনীতা, ভুল ভলাইয়া, ইশকিয়া, নো ওয়ান কিলড জেসিকার মতো একের পর এক ছবিতে দর্শক মনে জায়গা করে নিয়েছিলেন বিদ্যা। তন্বী হওয়ার কোনও তাগিদই অনুভব করেননি তিনি। বরং সিল্ক চরিত্রে অভিনয়ের জন্য খেয়ে খেয়ে মোটা হয়েছিলেন বিদ্যা। এই ছবির হাত ধরেই বিদ্যার জীবনে এসেছে জাতীয় পুরস্কারও।

সোনাক্ষি সিনহা-অভিনয়ে আসার আগে সোনাক্ষির ওজন ছিল ৯০ কেজি। বড়পর্দায় আসার আগে ৩০ কেজি কমিয়েছিলেন সোনাক্ষি। কিন্তু ষাট কেজির সোনাক্ষিও নায়িকা সুলভ শরীরের ধারেকাছেও আসেন না। বিদ্যার মতো বুদ্ধিদীপ্ত মুখা বা অভিনয় ক্ষমতা কোনওটাই নেই সোনাক্ষির। তবে দাবাং-এর দেহাতী মহিলার চরিত্রে বেশ মানিয়ে যান তিনি। নিজের গণ্ডীও শুরু থেকেই বুঝে নিয়েছেন সোনাক্ষি। রাউডি রাঠোর, দাবাং টু, আর...রাজকুমারের মতো ছবিতেই আম দর্শকের মনে ভালই জায়গা করে নিয়েছেন তিনিও। সোনাক্ষি এখন বলিউডের একশো কোটির পৃথুলা।

পরিনীতি চোপড়া-দিদি পারফেক্ট শরীরে অধিকারী হলেও এখনও বেবি ফ্যাট ঝরিয়ে উঠতে পারেননি পরিনীতি। ইশাকজাদে ছবিতে বাবলি পরিনীতির মধ্যেই গ্ল্যামার আর সুন্দর অভিনয়ের আভাস পেয়েছিলেন দর্শকরা। তবে লেডিজ ভার্সেস রিকি বহলের সেই মেদ অনেকটাই ঝরিয়ে ফেললেও এখনও তন্বী বলা যায় না পরিনীতিকে। কিন্তু নিজের স্টাইলে এরমধ্যেই নজর কেড়েছেন পরিনীতি। লেহেঙ্গা থেকে অফশোল্ডার, ককটেল ড্রেস থেকে জিন্স টি-শার্ট সবকিছুতে সমান স্বচ্ছন্দ পরিনীতি তৈরি করেছেন নিজের স্টাইল স্টেটমেন্ট। শুদ্ধ দেশি রোম্যান্সেও ধরা পড়েছে তাঁর ক্যাজুয়াল কার্ভস।

হুমা কুরেশি-মাত্র দুবছর আগে বলিউডে পা রেখেছেন রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ী সেলিম কুরেশির মেয়ে। লভ শুভ তে চিকেন খুরানা, গ্যাংস অফ ওয়াসেপুরে প্রথম থেকেই হুমা বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি থাকতেই এসেছেন। বাবলি মুখের মধ্যেই রয়েছে পরিণত মন ছায়া আর গভীর চোখের দৃষ্টির কাছে হার মেনেছে তাঁর পৃথুলা শরীর। এক থি ডায়ান ছবিতে আভিজাত্যে, দেড় ইশকিয়ায় লাস্যের ভঙ্গিমায় সমালোচকদের খুশি করেছেন হুমা। অনেকেই তাঁর মধ্যে খুঁজে পেয়েছেন ভবিষ্যতের বিদ্যাকে।

সানি লিওন- ইন্দো-কানাডিয়ান পর্নস্টারের বলিউডে আত্মপ্রকাশই ঝড় তুলেছিল। ভট ক্যাম্পের হাত ধরে এসেছেন এই ভলাপচুয়াস সুন্দরী। জিসম টু-তে তাঁর পেলব শরীরের প্রতিটি ভাঁজে উত্তেজনা খুঁজেছে দর্শক। অভিনয়ে কতটা মন কাড়বেন প্রথম ছবির পরই তা বলা না গেলেও ইউটিউব বলছে তাঁর আইটেম নম্বর গত বছরের সেরা হিট আইটেম সং। শুধু বড়পর্দায় নয়, টিভি কমার্শিয়ালেও সুন্দর মুখের পেলব, ঢলঢলে শরীরের সানি ভারতীয় দর্শকের পছন্দের তালিকায় বেশ উপরের দিকেই আছেন।



First Published: Thursday, January 16, 2014 - 19:47


comments powered by Disqus