কোথা থেকে কখন যে কী হয়ে গেল!

Last Updated: Friday, April 11, 2014 - 19:48

শর্মিলা মাইতি

ছবির নাম: তিন পাত্তি

রেটিং: *

এমন বহুবার হয়, যা আপনাকে পোস্টার দেখাচ্ছে, বক্স অফিসে টিকিট কেটে হলে ঢোকার পর মোটেই দেখতে পাচ্ছেন না। কিংবা হয়তো ছবি রিলিজের ঠিক আগেই খবরের কাগজের পাতা জুড়ে বিরাট ইন্টারভিউ, লম্বা-চওড়া কথাবার্তা, চ্যাট শো। নীট রেজাল্ট জিরো। ছবিতে তার কিছুই নেই! তবে হ্যাঁ, আজকাল যে-কোনও ছবি রিলিজের আগেই, বিশেষত বাংলা ছবি রিলিজের আগে শতকরা একশো ভাগ পরিচালক, অভিনেতা ও প্রযোজক সকলের একটাই দাবি থাকে- আমার ছবিখানা বাংলা ছবির ইতিহাসে প্রথম।

এমন দাবি, বলাই বাহুল্য, এই পরিচালকদ্বয়েরও ছিল। যাঁরা ছবিটি ইতিমধ্যেই দেখেছেন, তাঁরা বিলক্ষণ বুঝেছেন যে, বাংলা ছবির স্ক্রিপ্ট এঁরা প্রথমবার লিখলেন। নাহলে এমন শিশুসুলভ ভুলভ্রান্তিপূর্ণ স্ক্রিপ্ট কীভাবে চারপায়ে খাড়া হয়ে দাঁড়িয়ে গেল, কে জানে! সাসপেন্স থ্রিলার বলে দাবি করলেও এ ছবিতে তার লেশমাত্র নেই।

অনভিজ্ঞ পরিচালক আর দিকদিশাহারানো স্ক্রিপ্ট, এই দুইয়ের মধ্যে ভাল অভিনেতার পারফরম্যান্সও কেমন চিড়েচ্যাপ্টা হয়ে যায়, তার অন্যতম নিদর্শন এই ছবি। ঋত্বিক ও ইন্দ্রনীল, ছবির দুই প্রধান চরিত্র, বাস্তবে এঁদের সমতুল্য অভিনেতা সত্যিই মেলা দুষ্কর। একটা আদ্যন্ত খেই-হারানো গল্পের শিকার হলেন তাঁরা। নায়িকার ভূমিকায় পূজা বসু বেশ সুন্দরী, স্মার্ট। লুকস সম্পর্কে অসম্ভব সচেতন, অভিনয়ের ব্যাপারে ততখানি নন। আরও অনেক ঘষামাজা প্রয়োজন। আই-ক্যান্ডি চরিত্রের বাইরে ইনি কখনও কিছু করেননি। ঊষসী চক্রবর্তী বেশ প্রমিসিং, কিন্তু তেমনভাবে জায়গা দেওয়া হলই না। বরং রিমঝিমের চরিত্র, যা ক্যামিও হলেও কোনও হেরফের হত না, সেই চরিত্রের লেংথ আর ভল্যুম এতটা কেন বাড়ানো হল, যাতে গল্পটা আরও ভোঁতা হয়ে যায়?

তিন পাত্তি-তে মিউজিক দিয়েছেন ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্ত। সুরের অপব্যবহার আর গানের অপমৃত্যু বললেও কমই বলা হয়, সং সিকোয়েন্সের জন্য প্রয়োজনীয় শট নেওয়াই হয়নি, সেটা স্ক্রিনেই বোঝা যাচ্ছে। অনাবশ্যক লম্বা, কার্য-কারণ-সম্পর্কবিহীন প্লট, সব মিলিয়ে এমন এক ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়েছে, যার পরিণাম হিসেবে একটাই কথা বলা যায়। এ ছবির নাম তিন পাত্তি না হয়ে, তিন বন্ধু, তিনটি পাতা, তিনটি গল্প, যা ইচ্ছে হতে পারত। যাঁরা তাস খেলতে জানেন, তাঁরাই বুঝবেন তিন পাত্তি-র কনসেপ্টের সঙ্গে সুদূর সম্পর্কও নেই এ ছবির!



First Published: Friday, April 11, 2014 - 19:48


comments powered by Disqus