রাষ্ট্রসঙ্ঘে শ্রীলঙ্কার বিরোধী প্রস্তাবে ভোট ভারতের

রাষ্ট্রসঙ্ঘে শ্রীলঙ্কার বিরোধী প্রস্তাবে ভোট ভারতের

রাষ্ট্রসঙ্ঘে শ্রীলঙ্কার বিরোধী প্রস্তাবে ভোট ভারতেরমানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে রাষ্ট্রসঙ্ঘে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে আনা প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিল ভারত। সাতচল্লিশ সদস্যের মানবাধিকার কাউন্সিলের ২৫টি দেশই মার্কিন ওই প্রস্তাব সমর্থন জানানোয় তা পাশ হয়ে যায়। প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিলেও একাধিক সংশোধনী আনারও চেষ্টা করেন ভারতের প্রতিনিধি। যদিও, সেগুলি শেষ পর্যন্ত সেগুলি গ্রাহ্য হয়নি।

বৃহস্পতিবার সুইজারল্যান্ডের জেনিভায় রাষ্ট্রসঙ্ঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে আনা মার্কিন প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হয়।

শ্রীলঙ্কায় ক্রমাগত মানবাধিকার লঙ্ঘন, অত্যাচার, বহু মানুষের উধাও হয়ে যাওয়া, মতপ্রকাশ ও জমায়েতের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ, মানবাধিকার কর্মীদের কাজে বাধা, বিচারবিভাগের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের মতো নানা বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয় ওই প্রস্তাবে।

রাষ্ট্রসঙ্ঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে মার্কিন প্রস্তাবটির ওপর সংশোধনী আনার চেষ্টা করেন ভারতের প্রতিনিধি দিলীপ সিনহা। যদিও, শেষ পর্যন্ত ওইসব সংশোধনী মূল প্রস্তাবে জায়গা পায়নি। সংশোধনী গ্রহণের পর প্রস্তাবটি অতিরিক্ত কড়া হয়ে গেলে যে ঐকমত্য গড়ে উঠেছে তা নষ্ট হয়ে যাবে। এই যুক্তিতে ভারতের আনা সংশোধনী মানবাধিকার কাউন্সিলে খারিজ হয়ে যায়।

প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার সময় ভারতের প্রতিনিধি বলেন, শ্রীলঙ্কায় মানবাধিকার লঙ্ঘন ও সাধারণ মানুষের হত্যার অভিযোগের নিরপেক্ষ ও বিশ্বাসযোগ্য তদন্ত হওয়া দরকার। এ ক্ষেত্রে, আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পুরণে শ্রীলঙ্কা সরকারের অগ্রগতি যথেষ্ট নয়।  

সংশোধনী আনতে ব্যর্থ হওয়ার পরও শেষ পর্যন্ত মার্কিন প্রস্তাবের পক্ষেই ভোট দেয় ভারত।

মানবাধিকার কাউন্সিলের ৪৭টি সদস্য দেশের মধ্যে ভারত সহ ২৫টি দেশ শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে আনা প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেয়। পাকিস্তান সহ ১৩টি দেশ ভোট দেয় প্রস্তাবের বিপক্ষে। আটটি দেশ ভোটদানে বিরত থাকে। ভোটাধিকার না থাকায় ভোট দিতে পারেনি গ্যাবন। মার্কিন প্রস্তাবটিকে পক্ষপাতদুষ্ট ও গ্রহণযোগ্য নয় বলে অভিযোগ করেছে শ্রীলঙ্কা। তবে, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে আনা প্রস্তাবটি আরও কড়া হওয়া উচিত ছিল বলে মতপ্রকাশ করেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।


First Published: Friday, March 22, 2013, 09:10


comments powered by Disqus