বাতিল মিনারভার চুক্তি, ধরনায় শিল্পীরা

নাটক থেকে চলচ্চিত্র। বিভিন্ন শিল্প রক্ষার বার্তা বারবার শোনা গেছে মুখ্যমন্ত্রীর গলায়। তবে এবার তাঁর সরকার নির্বাচিত কমিটির হঠকারি সিদ্ধান্তে বিপন্ন শিল্প। কোনও আলোচনা ছাড়াই সময়সীমার আগে, বাতিল করে দেওয়া হল মিনারভা থিয়েটারের নাট্যসংস্থা রেপাটোরির চুক্তি।

Updated: Mar 11, 2013, 07:38 PM IST

নাটক থেকে চলচ্চিত্র। বিভিন্ন শিল্প রক্ষার বার্তা বারবার শোনা গেছে মুখ্যমন্ত্রীর গলায়। তবে এবার তাঁর সরকার নির্বাচিত কমিটির হঠকারি সিদ্ধান্তে বিপন্ন শিল্প।  কোনও আলোচনা ছাড়াই সময়সীমার আগে, বাতিল করে দেওয়া হল মিনারভা থিয়েটারের নাট্যসংস্থা রেপাটোরির চুক্তি।  
২০১০ সাল। মিনারভা থিয়েটারে রেপাটারিতে নিয়মিতভাবে নাটক মঞ্চস্থ করার চুক্তিভিত্তিক ভাবে শিল্পী নিয়োগ করে তত্কালীন বাম সরকার। চুক্তি অনুসারে রেপাটারিতে শিল্পীরা সকলেই সরকারি বেতনভুক্ত। চুক্তির সময়সীমা ৩ বছর হলেও শর্ত অনুযায়ী প্রতি বছর জুলাইয়ে মেয়াদবৃদ্ধি করাতে হয় চুক্তির। তৃণমূল কংগ্রেস রাজ্যের ক্ষমতায় এলে মিনারভা থিয়েটার পরিচালনার জন্য গঠন করা হয় নতুন কমিটি। ২০১১ সালেও চুক্তির মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য সরকারের তরফে নির্দেশিকা জারি করা হয়। ২০১২ সালে সরকারের তরফে কোনও নির্দেশিকা জারি করা না হলেও বেতনে ছেদ পড়েনি। তবে সংস্থার শিল্পীদের অভিযোগ, গত ৪ মাসে নাটক মঞ্চস্থ করার সুযোগ মেলেনি।
চুক্তির চূড়ান্ত সময়সীমা ছিল ২০১৩ সালের জুলাই মাস পর্যন্ত।  তবে হঠাতই ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহে চুক্তি বাতিলের  বিজ্ঞপ্তি জারি করে রাজ্য সরকার। সেই বিজ্ঞপ্তিতে সরকারি কোনও সিলমোহর ছিল না।  মিনারভার মেরামতিকেই চুক্তি বাতিলের কারণ বলে জানানো হয়। রেপাটারির শিল্পীদের অভিযোগ, চুক্তি বাতিল করা হলেও পুরোদমে চলছে অন্যান্য নাটকের মহড়া থেকে নাট্য উত্সবও। বিজ্ঞপ্তি জারির পর থেকেই মিনারভার সামনে ধরনায় বসছেন  শিল্পীদের একাংশ।
ক্যামেরার সামনে এবিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ সরকারি কমিটির সদস্যরা। তবে কমিটির তরফে দাবি, তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর আর্থিক বছরের নিরিখে সময়সীমা মার্চ অবধি করার কথা মৌখিকভাবে শিল্পীদের জানানো হয়েছিল। অন্যদিকে শিল্পীদের দাবি,  নির্দিষ্ট নির্দেশিকা ছাড়া এইভাবে চুক্তি বাতিল বেআইনি।