দিনভর কে কী বললেন, পড়ুন হেভিওয়েটদের প্রতিক্রিয়া

দিনভর কে কী বললেন, পড়ুন হেভিওয়েটদের প্রতিক্রিয়া

পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের মধ্য দিয়ে লোকসভা ভোটের সেমিফাইনাল ম্যাচ দেখছে দেশ। তিন রাজ্যে ভরাডুবি কংদগ্রেসের, ছত্তিসগড়ে হাড্ডাহাড্ডি, মসনদের দিকে এগোলেন মোদী। পড়ুন দিনভর রাজনীতিকদের প্রতিক্রিয়া:

রাজনাথ সিং: বিধানসভা ভোটেও কাজ করেছে মোদী ম্যাজিক। বিরোধী ভোট পেয়েছে আম আদমি পার্টি।

রাহুল গান্ধী: আম আদমি পার্টি সাধারণ মানুষকে পাশে পেয়েছ। আমরা এর থেকে শিক্ষা নিচ্ছি, আরও বেশি মানুষের কাছাকাছি আসতে হবে আমাদের। মোদী বিদেপি নেতা। দেশের প্রতি ওনার দৃষ্টিভঙ্গি আলাদা। আমাদের নিজেদেরও দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে। ভাল সরকার গড়া নয়, আমাদের লক্ষ্য মানুষের উন্নয়ন। আমাদের কাজ, নিজেদের বক্তব্য, উদ্দেশ্যকে বেশি করে মানুষের সামনে তুলে ধরা। আমি দলের তরফ থেকে বিজেপিকে অভিনন্দন জানাই।

সোনিয়া গান্ধী: ফলাফল গভীর ভাবে খতিয়ে দেখতে হবে। কারণগুলো খুঁজে বের করতে হবে। আমরা হতাশ। বিরোধীদের অভিনন্দন। প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থীর নাম শীঘ্রই ঘোষনা করা হবে।

নীতিন গড়করি: কংগ্রেসের ভোট কেটেছে আম আদমি পার্টি। কিন্তু যেভাবে কংগ্রেসের ভোট কমেছে সেটা সত্যিই আশ্চর্যের। ফলাফলই বলে দিচ্ছে দেশ এখনই নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্ব স্বীকার করে নিয়েছে। আমি নিশ্চিত ৪টি রাজ্যেই সংখ্যা গরিষ্ঠতা পাব। সোনিয়া, রাহুলের ওপর মানুষের কোনও ভরসাই নেই।

অরুণ জেটলি: আম আদমি পার্টি নতুন দল। মানুষ নতুন বাজি লাগাতে চেয়েছে। দেখা যাক কতদিন আম আদমি পার্টি টিকে থাকে। নতুন দল হিসেবে খুব ভাল ফল করেছে আম আদমি পার্টি। রাজস্থানে আমরা ৮০ শতাংশ মানুষের সমর্থন পেয়েছি। দিল্লিতে আমরা সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার থেকে একটু আগে থেমে গিয়েছি তবে নিঃসন্দেহে আমরা রাজধানীর সবথেকে বড় দল।

মোহন প্রকাশ: মানুষ আমাদের বিরোধী আসনে বসার সুযোগ দিয়েছে। সেই দায়িত্ব আমরা যথাযথ ভাবে পালন করব। দেখব আমরা কীভাবে ক্ষমতায় ফিরতে পারি।

ন্যভজোত্ সিং সিধু: কথায় আছে কংগ্রেস যখন আমাদের আঘাত দেখেনি, তখন আমরাও তাদের ফিরে দেখিনি (লোগ কহতে হ্যায় কংগ্রেস যব হামারে জখম নহি দেখা, তো হামনে ভি পলটকে উসকো নহি দেখা)। এটাতো ট্রেলর, যা বলছে কংগ্রেস শেষ হয়ে গেছে। লোকসভায় ২৭০-এর বেশি আসনের দিকে তাকিয়ে বিজেপি।

জনার্দন দ্বিবেদী: এত তাড়াতাড়ি কংগ্রেস কোনও সিদ্ধান্তে আসতে রাজি নয়। আমরা এটাকে সেমিফাইনাল হিসেবে দেখছি না। জাতীয় রাজনীতির চিত্রটাই আলাদা। দিল্লিতে টিকিট দেওয়ার সময়ও আমরা ভুল করেছি।

বাবা রামদেব: আম আদমি পার্টিকে আমার অভিনন্দন। যেখানেই রাহুল গান্ধী, সোনিয়া গান্ধী প্রচার করেছেন, সেখানেই কংগ্রেস হেরেছে।

হর্ষবর্ধন: আম আদমি পার্টিকে অভিনন্দন জানাই। ১৫ বছর শাসনের জন্য শিলা দীক্ষিতকে ধন্যবাদ জানাই।

আন্না হাজারে: অরবিন্দের কারও সাহায্য নেওয়া উচিত নয়। দরকার হলে আরও একটা নির্বাচনে লড়বে। কিন্ত কোনও খিচুরি নয়।


First Published: Sunday, December 08, 2013, 18:33


comments powered by Disqus