কড়েয়া থানার বাইরে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা

কড়েয়া থানার বাইরে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা

কড়েয়া থানার বাইরে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা পুলিসি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে এবার থানার সামনেই গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটল। গত ৩ ডিসেম্বর কড়েয়া থানার সামনে গায়ে আগুন দিয়েছিলেন মীর আমিনুল ইসলাম। আজ সল্টলেকের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে মৃত্যু হয় তাঁর।

রীতিমতো সুইসাইড নোট লিখে কড়েয়া খানার সামনে গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে, আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে পাম অ্যাভিনিউয়ের বাসিন্দা এই যুবক। নাম মীর আমিনুল ইসলাম ওরফে গুড্ডু। সুইসাইড নোটে লেখা ছিল।  কড়েয়ায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছেনা পুলিস। অভিযুক্ত শাহজাদা পুলিসের ঘনিষ্ঠ। তাই নিষ্ক্রিয় পুলিস। বরং গুড্ডুর বিরুদ্ধেই পাল্টা হামলা, ভাঙচুর এবং লক্ষাধিক টাকা লুঠের অভিযোগ দায়ের করা হয়।
 
গুরুতর অগ্নিদ্বগ্ধ আমিনুলকে প্রথমে ন্যাশনাল মেডিক্যাল, পরে সল্টলেকের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই মঙ্গলবার বিকেলে মৃত্যু হয়েছে আমিনুলের। যদিও আমিনুল গায়ে আগুন দেওয়ার পরেই ধর্ষণে অভিযুক্ত শাহজাদাকে গ্রেফতার করে পুলিস। বর্তমানে জেল হেফাজতে রয়েছে সে। কড়েয়া থানার পুলিসের ভূমিকা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানা গেছে। 

First Published: Tuesday, January 01, 2013, 20:52


comments powered by Disqus