• 'গুন্ডারাজ'। বিধানসভার মধ্যে শাসকদলের বিধায়কদের হাতে নিগৃহীত হলেন বিরোধীরা। রাজ্যরাজনীতির অন্যতম কলঙ্কিত ঘটনা।

  • 'মহামারী ডেঙ্গু'। ডেঙ্গুর প্রকোপ সামলাতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ পুরসভা। কলকাতা সহ গোটা রাজ্যে মৃত পঞ্চাশেরও বেশি।

  • 'সব সাজানো সংবাদ মাধ্যমে'। মিটিং-এ, মিছিলে এমনকী ফেসবুকেও মুখ্যমন্ত্রীর রোশানলে সংবাদ মাধ্যম।

  • অসহিষ্ণুতার শিকার। অম্বিকেশ থেকে শিলাদিত্য, তানিয়া থেকে পার্থসারথি, মুখ্যমন্ত্রী ও তাঁর দলের হাতে অকারণ হেনস্থার কয়েকটি মুখ।

  • 'ফ্লপ স্লোগান'। রাস্তায় মোড়ে মোড়ে পরিবর্তনের ব্যানারে ছেয়ে গিয়েছিল গোটা কলকাতা। কিন্তু 'পরিবর্তন'-এর ঠেলায় প্রাণ ওষ্টাগত রাজ্যবাসীর।

  • 'গুলির শক্তিশেল'। যে নন্দীগ্রামে গুলি চালনার বিরোধিতা করে ক্ষমতায় এসেছিল তৃণমূল সরকার। তেহট্ট, লোবা সহ আরও তিন জায়গায় গুলি চালানোর সিলসিলা বজায় রাখল এই সরকার।

  • 'জমি জট'। রাজ্যের জমি ব্যাঙ্ক শূন্য। অন্যদিকে রাজ্যের জমিনীতির জেরে এ রাজ্যে শিল্প গড়তে নারাজ শিল্পপতিরা। নিটফল? প্রায় বিনিয়োগ বিহীন একটা বছর।

  • 'সিঙ্গুর ফল টক'। সব প্রতিশ্রুতি জলে গেল। সিঙ্গুরে না হল শিল্প, বাসিন্দারা না পেলেন জমি ফেরত।

  • 'ভাব ভাব আড়ি আড়ি'। হাত ধরাধরি করে ক্ষমতায় আসার এক বছরের মধ্যেই শেষ মধুচন্দ্রিমা। কংগ্রেস-তৃণমূলের বিচ্ছেদটা ঘটেই গেল।

  • 'ত্রিফলা কেলেঙ্কারি'। রাজ্যকে লন্ডন বানাবার চক্করে শহরের আনাচে কানাচে বসল ত্রিফলা আলো। আর বছর ঘুরতে না ঘুরতে সেই ত্রিফলা আলোর কেলেঙ্কারিতে জেরবার পুরসভা।

  • 'আক্রান্ত অর্ধেক আকাশ'। নারী নির্যাতনে এই বছর আমাদের রাজ্য এক নম্বরে। এরপর অন্য মন্তব্য নিষ্প্রয়োজন।