কোন দেশের পুরুষাঙ্গের গড় দৈর্ঘ কত? কী বলছে সমীক্ষা?

বিজ্ঞান বিষয়ক পত্রিকা পার্সোনালিটি এন্ড ইন্ডিভিজুয়াল ডিফারেন্সেস-এ (Personality and Individual Differences) প্রকাশিত হয়েছে এই তথ্য।

Updated: Aug 31, 2018, 08:54 AM IST
কোন দেশের পুরুষাঙ্গের গড় দৈর্ঘ কত? কী বলছে সমীক্ষা?

নিজস্ব প্রতিবেদন: বহু পুরুষেরই পুরুষাঙ্গের দৈর্ঘ বা আকার নিয়ে সংশয় রয়েছে। কোন দেশের পুরুষাঙ্গের আকার কত সম্প্রতি তার উপরে একটি গবেষণা তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। বিজ্ঞান বিষয়ক পত্রিকা পার্সোনালিটি এন্ড ইন্ডিভিজুয়াল ডিফারেন্সেস-এ (Personality and Individual Differences) প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বের পুরুষদের লিঙ্গের গড় আকার ৫.৫ ইঞ্চি। লন্ডনের কিংস কলেজ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হেলথকেয়ার সার্ভিসেস (এনএইচএস) ট্রাস্ট-এর যৌথ উদ্যোগে এই গবেষণা চালানো হয়েছে। ব্রিটিশ জার্নাল অফ ইউরোলজি ইন্টারন্যাশনাল-এ প্রকাশিত আর একটি গবেষণার রিপোর্টেও মোটামুটি একই তথ্য সামনে এসেছে।

আরও পড়ুন: পুত্র না কন্যা? জবাব দিচ্ছে ব্রিটিশ গবেষণা

গবেষকরা ৮০টি দেশের প্রায় সাড়ে পনেরো হাজার মানুষের উপর সমীক্ষা চালিয়ে এই তথ্য প্রকাশ করেছেন। সমীক্ষার রিপোর্টে প্রকাশিত ৮০টি দেশের পুরুষের লিঙ্গের আকার প্রকাশের পর দেখা গিয়েছে, শারীরিক দৈর্ঘের তারতম্য অনুযায়ী পুরুষাঙ্গের দৈর্ঘেরও তারতম্য ঘটে। আসুন জেনে নেওয়া যাক এই গবেষণায় সামনে আসা কয়েকটি উল্লেখযোগ্য তথ্য।

• বিশ্বে পুরুষদের লিঙ্গের গড় দৈর্ঘ ৫.৫ ইঞ্চি। গড়ে সবচেয়ে বড় লিঙ্গের অধিকারী কঙ্গোর পুরুষরা। এ দেশের পুরুষদের লিঙ্গের গড় দৈর্ঘ ৭.১ ইঞ্চি।

• দক্ষিণ কোরিয়ার পুরুষদের লিঙ্গের গড় দৈর্ঘ সবচেয়ে কম। এ দেশের পুরুষদের লিঙ্গের গড় দৈর্ঘ ৩.৮ ইঞ্চি।

আরও পড়ুন: সুস্থ যৌন মিলনের সবচেয়ে ভাল সময় কোনটি জানেন?

• বিশ্বের শুধুমাত্র ৩ শতাংশ পুরুষের লিঙ্গের দৈর্ঘ ৮ ইঞ্চির বেশি। বিশ্বের মাত্র ৬ শতাংশ পুরুষের সাধারন মাপের কন্ডমের চেয়েও বড় আকারের কন্ডমের প্রয়োজন হয়।

• ভারতীয় পুরুষদের লিঙ্গের গড় দৈর্ঘ ৪ ইঞ্চি। চিন এবং জাপানের পুরুষদের লিঙ্গের গড় দৈর্ঘ ৪.৩ ইঞ্চি।

আরও পড়ুন: এই খাবারগুলি কমিয়ে দিতে পারে আপনার যৌন আকাঙ্ক্ষা!

এই গবেষণার রিপোর্ট নিয়ে বিতর্ক অব্যহত। অনেকেই এই রিপোর্টকে ‘অসম্পূর্ণ’ বলে দাবি করেছেন। তাঁদের যুক্তি, বর্তমানে গোটা বিশ্বের জনসংখ্যা প্রায় ৮০০ কোটি (৭.৬ বিলিয়নের বেশি)। তার মধ্যে মাত্র সাড়ে ১৫ হাজার মানুষের উপর গবেষণা চালিয়ে এমন সিদ্ধান্তে আসা কখনওই সম্ভব নয়।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close