কোটলায় আজ মহারণে ফাইনাল ওঠার লড়াইয়ে ধোনি বনাম সচিন

শ্রীসন্থদের অপকীর্তি নিয়ে দেশজুড়ে চলা ঝড়ের মাঝেই আইপিএল আজ মহারণ। আজ, মঙ্গলবার ফিরোজ শাহ কোটলায় মুম্বই ইন্ডিয়ন্স বনাম চেন্নাই সুপার কিংস ম্যাচে যারাই জিতবে তারাই আইপিএল সিক্সের ফাইনালে উঠে যাবে। পোশাকি ভাষায় আইপিএলে আজেকর ম্যাচটার নাম ফার্স্ট কোয়ালিফায়ার। এই ম্যাচে জিতলেই ফাইনালে ওঠা যাবে, আর হারলেও পাওয়া যাবে আরও একটা সুযোগ।

Updated: May 21, 2013, 03:51 PM IST

শ্রীসন্থদের অপকীর্তি নিয়ে দেশজুড়ে চলা ঝড়ের মাঝেই আইপিএল আজ মহারণ। আজ, মঙ্গলবার ফিরোজ শাহ কোটলায় মুম্বই ইন্ডিয়ন্স বনাম চেন্নাই সুপার কিংস ম্যাচে যারাই জিতবে তারাই আইপিএল সিক্সের ফাইনালে উঠে যাবে। পোশাকি ভাষায় আইপিএলে আজেকর ম্যাচটার নাম ফার্স্ট কোয়ালিফায়ার। এই ম্যাচে জিতলেই ফাইনালে ওঠা যাবে, আর হারলেও পাওয়া যাবে আরও একটা সুযোগ।
আজ ধোনি অথবা রোহিত শর্মার দল, যারাই হারুন তারা ফাইনালে ওঠার লড়াই থেকে ছিটকে না গিয়ে খেলতে পারবে কোয়ালিয়ার টু`তে। সেই ম্যাচে গ্রুপ লিগের তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানের দলের (পোশাকি ভাষায় নাম এলিমিনেটর) জয়ীদের বিরুদ্ধে খেলবে।
এতো গেল প্রতিযোগিতার নিয়মের কথা। এবার আসা যাক আজকের ম্যাচের কথায়। সুনীল গাভাসকরের মত প্রাক্তন ক্রিকেটাররা তো বলছেন, আজকের ম্যাচটা আসলে ফাইনালের `ড্রেস রিহার্সাল` (‘সম্ভাব্য ফাইনাল’)। চেন্নাই , মুম্বই দুটো দলই রাউন্ড রবীন লিগে ১৬ টা ম্যাচের মধ্যে ১১টাতে জয় পেয়েছে। ম্যাচ উইনারের সংখ্যা গুনলেও সমান সমান। তবু অতীতের পারফরম্যানসের বিচারে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা সামান্য এগিয়ে রাখছেন ধোনির দলকে। তবে টি-২০ তে বারবার ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা বোকা বলেছেন এটাও সত্যি। সে যাই হোক এই ম্যাচের আগে সবচেয়ে বড় যে দুটো প্রশ্ন উঠছে তা হল ১) আবার ফিক্সিং কলঙ্কের দাগ লাগবে না তো, ২) সচিন তেন্ডুলকর খেলবেনকি না। প্রথম প্রশ্নটার সমাধানে বোর্ড একেবারে মরিয়া। প্লে অফের চারটে টিমের সঙ্গেই দুর্নীতিদমন শাখার অফিসারদের জুড়ে দেওয়া হয়েছে। অফিসাররা টিমের সঙ্গে থাকবেন, ঘুরবেন এবং টিমের নিরাপত্তা ইনচার্জের সঙ্গে এক সঙ্গে কাজ করবেন। বোর্ডের দুর্নীতিদমন অফিসার রবি সাওয়ানি দিল্লি পুলিশের সঙ্গে এ দিন দেখা করেন। দ্বিতীয় প্রশ্নের জবাবটা এখনও পরিষ্কার পাওয়া যাচ্ছে না। তবে আজ দুপুরের খবর সচিনকে খেলাতে মরিয়া মুম্বই ইন্ডিয়ান্স।
ধোনি বরাবরের মতই রিল্যাক্সড। রাউন্ড রবীন লিগে শেষের দিকে চেন্নাই সুপার কিংসের জয়ের তাল কিছুটা কাটলেও গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ধোনিদের ট্র্যাক রেকর্ড বরাবরই চোখ ধাঁধাঁনো। হাসি, বিজয় তো বটেই ধোনি স্বয়ং, জাদেজা, আর অবশ্যই রায়না যে মেজাজে আছেন তাতে কোটলাতে ফেভারিট হয়েই নামছেন ধোনিরা। তবে বোলিংয়ে এখনও বেশ কিছু সমস্যা আছে ধোনিদের। মুম্বইয়ের বোলিং অবশ্য চেন্নাইয়ের থেকে কিছুটা ভাল। তবে মোক্ষম সময়ে ম্যাচ জেতানোর কারিগর বলতে গেলে চেন্নাই সুপার কিংসের ঘরেই। তাই ম্যাচের দাঁড়িপাল্লা দেখে মনে হচ্ছো কোটলায় জমজমাট একটা ম্যাচ অপেক্ষা করে আছে। যতই হোক ম্যাচটা তো শুধু মুম্বই বনাম দিল্লির একটা খেলা নয়, এই ম্যাচ কলঙ্কমোচনেরও। যতই হোক কলঙ্কের দাগ লেগে থাকা একটা প্রতিযোগিতায় ক্রিকেটারদের দায়িত্ব অনেক। ধোনি, পোলার্ডদের এখন শুধু দলকে জেতালেই চলবে না, জিততে হবে দেশবাসীর বিশ্বাসকেও। তাই বাইশ গজের লড়াইটা এখন শুধু বল বনাম ব্যাটের নয়। বিশ্বাস বনাম অবিশ্বাসেরও।