জয় ছাপিয়ে জয়পুর দেখল তিন কিংবদন্তির মিলন

গতকাল ঝড় উঠল কলকাতায় আর তছনছ হল দেশের অন্য দুপ্রান্তে। এক পুণে, তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ল। অমিত মিশ্রের কালবৈশাখীর মতো বোলিং দাপটে সবকিছু হারিয়ে বাস্তুহারা হয়ে পড়ে সুব্রত রায়ের স্বপ্নের দল। আর জয়পুরে সেই একই দৃশ্য। রাজস্থানের শক্ত `দেওয়াল` হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে মুম্বই ইন্ডিয়ানসের উপর। ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ১৭৯ রানের তাড়া করতে গিয়ে মাত্র ৯২ রানে সব শেষ।

Updated: Apr 18, 2013, 12:17 PM IST

রাজস্থান- ১৭৯/৩ (২০ ওভার)
মুম্বই- ৯২/১০ (১৮.২ ওভার)
রাজস্থান ৮৭ রানে জয়ী
ম্যাচের সেরা- আজিঙ্কা রাহানে
গতকাল ঝড় উঠল কলকাতায় আর তছনছ হল দেশের অন্য দুপ্রান্তে। এক পুণে, তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ল। অমিত মিশ্রের কালবৈশাখীর মতো বোলিং দাপটে সবকিছু হারিয়ে বাস্তুহারা হয়ে পড়ে সুব্রত রায়ের স্বপ্নের দল। আর জয়পুরে সেই একই দৃশ্য। রাজস্থানের শক্ত `দেওয়াল` হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে মুম্বই ইন্ডিয়ানসের উপর। ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ১৭৯ রানের তাড়া করতে গিয়ে মাত্র ৯২ রানে সব শেষ।
জয়পুরের দর্শকরা শিল্পার দলকে যেমন জেতার আশায় মনসিং স্টেডিয়ামে হাজির হয়েছিলেন, তেমনই দেখতে এসেছিলেন ক্রিকেটের তিন যুগনায়কের মিলন। দ্রাবিড় ছিলেন দ্রাবিড়ে, তাতে কোনও প্রশ্ন ছিল না। কিন্তু হতাশ করলেন সচিন-পন্টিং জুটি। প্রথম ওভারেই সচিন মাত্র ১ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। অধিনায়ক রিকি পন্টিংও বেশি দেরি করেননি। অজিত চন্দিলার সোজা বলকে বুমেরাঙের মতো ফিরিয়ে দেন পন্টিং। তখন স্কোরবোর্ডে নিজের রান ৪। আইপিএল কেরিয়ারে প্রথম অধিনায়কত্ব, কিন্তু সেইরমক উল্লেখযোগ্য পারফর্মেন্স লক্ষ্য করা যায় নি। দেখার মতো একটি অসাধারণ ক্যাচ যা আইপিএল অ্যালবামে চিরদিন ছবি হয়ে থাকবে।
টসে জিতে দ্রাবিড় ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন। শেন ওয়াটসন (৩১) ও আজিঙ্কা রাহানে (৬৮) মুম্বই বোলারদের তছনছ করে বড় পার্টনারশিপ তৈরি করেন। রাজস্থান রসালস মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে ১৭৯ রান করে। এই রানের জবাবে মুম্বইয়ের তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যানরা কেউ দাঁড়াতে পারলেন না। দীনেশ কার্তিক রুটিনমাফিক নিজের কাজটা সারার চেষ্টা করেছিল কিন্তু সবদিন যে ১০০% দেওয়া যায় না। তিনিই দলের হয়ে সর্বাধিক রান ৩২ বলে ৩০ রান করেন। রাজস্থান এখন ৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করে চিনের প্রাচীরের মতো পয়েন্ট তালিকায় প্রথম স্থানে রয়েছে।