যৌনকর্মীদের মূলস্রোতে ফেরাতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার যৌনকর্মীদের মূলস্রোতে ফেরাতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার

রাজ্যের যৌনকর্মীদের মূলস্রোতে ফেরাতে উদ্যোগ নিচ্ছে রাজ্য সরকার। প্রকল্পের নাম মুক্তির আলোয়। চলতি মাসেই প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী। যৌনকর্মীদের প্রশিক্ষণ দিয়ে সাবলম্বি করতেই সরকারের এই প্রয়াস। পুরো প্রকল্পের জন্য খরচ হবে নব্বই লক্ষ টাকা। রাজ্যে যৌনকর্মীর সংখ্যা প্রায় পঞ্চাশ হাজার। যৌনপেশার সঙ্গে পরোক্ষভাবে যুক্তদের ধরলে সংখ্যাটা এক লক্ষেরও বেশি। সরকারি তথ্য এ কথা বললেও বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাগুলির মতে আরও অনেক বেশি মহিলা এই পেশায় জড়িয়ে আছেন। যাঁদের একটা বড় অংশই ইচ্ছার বিরুদ্ধে এই পেশায় যুক্ত আছেন। এইসব যৌনকর্মীকে মূলস্রোতে ফেরাতে রাজ্য সরকারের নতুন প্রকল্প মুক্তির আলোয়।

কার দিকে থাকবে টেবল ফ্যানের মুখ? বচসায় সহকর্মীর হাতে খুন শ্রমিক কার দিকে থাকবে টেবল ফ্যানের মুখ? বচসায় সহকর্মীর হাতে খুন শ্রমিক

ঘুমনোর সময় টেবল ফ্যানের মুখ কার দিকে ঘোরানো থাকবে?সেই বচসায় সহকর্মীর হাতে খুন হয়ে গেলেন এক শ্রমিক। ঘটনা আনন্দপুরের।  মার্টিনপাড়া এলাকার একটি কারখানার দুই শ্রমিক মহম্মদ সরফুদ্দিন ও মহম্মদ শাহরুখ। রাতে কারখানাতেই পাশাপাশি শুতেন দুজনে। সহকর্মীরা জানিয়েছেন, টেবল ফ্যানের মালিকানা নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরেই দুজনের বচসা চলছিল। শনিবার রাতে ভারী কিছু দিয়ে সরফুদ্দিনের মাথা থেঁতলে দেয় শাহরুখ। তারপর কারখানায় রাখা কাপড়েই দেহ ভালভাবে মুড়ে পালিয়ে যায় সে। গোটা ঘটনাটি ধরা পড়েছে কারখানার CCTV ক্যামেরায়। শাহরুখের খোঁজে তল্লাসি শুরু করেছেন আনন্দপুর থানার পুলিস। তদন্তে কলকাতা পুলিসের হোমিসাইড শাখাও।