আবার অঙ্গ দান কলকাতায়, এবার সৌজন্যে সমর চক্রবর্তী

আবার অঙ্গ দান কলকাতায়, এবার সৌজন্যে সমর চক্রবর্তী

আবারও ব্রেন ডেথের পর অঙ্গদান। শোভনা সরকারের পর এ বার সচেতন কলকাতার মুখ সমর চক্রবর্তী।

আবার অঙ্গ দান কলকাতায়, সৌজন্যে সমর চক্রবর্তী আবার অঙ্গ দান কলকাতায়, সৌজন্যে সমর চক্রবর্তী

আবারও ব্রেন ডেথের পর অঙ্গদান। শোভনা সরকারের পর এ বার সচেতন কলকাতার মুখ সমর চক্রবর্তী।

নিছক মদের বোতলের ওপর পড়ে গিয়েই যদি আবেশের মৃত্যু হয়ে থাকে, তাহলে এত গোপনীয়তা কেন? নিছক মদের বোতলের ওপর পড়ে গিয়েই যদি আবেশের মৃত্যু হয়ে থাকে, তাহলে এত গোপনীয়তা কেন?

বালিগঞ্জে সানি পার্কের ঘটনায় সন্দেহের তালিকায় আবেশের এক বন্ধু। ওই কিশোরের রসা রোডের বাড়িতে তালা। বেপাত্তা গোটা পরিবার। প্রশ্ন উঠছে, আবেশের মৃত্যু যদি দুর্ঘটনাতেই হয়, তাহলে এত গোপনীয়তা কেন?

এবার তোলাবাজির অভিযোগ রাজারহাটের তৃণমূল নেতা তাপস চ্যাটার্জির বিরুদ্ধে এবার তোলাবাজির অভিযোগ রাজারহাটের তৃণমূল নেতা তাপস চ্যাটার্জির বিরুদ্ধে

এবার তোলাবাজির অভিযোগ রাজারহাটের তৃণমূল নেতা তাপস চ্যাটার্জির বিরুদ্ধে। তাঁর বিরুদ্ধে বিধাননগর পুলিস কমিশরাটে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগ জানানো হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর দফতরেও। মারধর এমনকি পুড়িয়ে মারার চেষ্টার অভিযোগ করা হয়েছে দাপুটে তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি।

অধীর-মানস কাজিয়া তুঙ্গে অধীর-মানস কাজিয়া তুঙ্গে

অধীর-মানস কাজিয়া এবার তুঙ্গে। অধীর চৌধুরী তাঁকে শো- কজ করতে পারেন কিনা তা নিয়ে এবার নিজেই প্রশ্ন তুললেন মানস ভুঁইঞা। তাঁর বক্তব্য ছিল, দলের একজন প্রাক্তন প্রদেশ সভাপতি এবং এআইসিসি সদস্যকে শো কজ করার অধিকার নেই প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির।

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজেই মিলল ম্যালেরিয়া ও ডেঙ্গির জীবানু বহনকারী মশার লার্ভা কলকাতা মেডিক্যাল কলেজেই মিলল ম্যালেরিয়া ও ডেঙ্গির জীবানু বহনকারী মশার লার্ভা

একেবারে বাঘের ঘরে ঘোগের বাস। খাস কলকাতা মেডিক্যাল কলেজেই মিলল ম্যালেরিয়া ও ডেঙ্গির জীবানু বহনকারী মশার লার্ভা। আজ সদলবলে মেডিক্যাল কলেজ অভিযানে যান মেয়র পারিষদ স্বাস্থ্য অতীন ঘোষ। কলেজের বিভিন্ন জায়গায় জমা জলে মশার লার্ভা খুঁজে পান তাঁরা। 

বজবজে সিন্ডিকেট কাণ্ডে তিরষ্কার কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির বজবজে সিন্ডিকেট কাণ্ডে তিরষ্কার কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির

পেশি শক্তি দিয়ে রাজ্য চালানো যাবে না। বজবজে সিন্ডিকেট কাণ্ডে তিরস্কার করলেন কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি। অভিযোগ পেয়েও ব্যবস্থা না নেওয়ায় প্রশ্নে দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা পুলিসের ভূমিকা নিয়েও।

সপ্তাহের শুরুতেই টানা বৃষ্টিতে নাজেহাল দশা শহরবাসীর সপ্তাহের শুরুতেই টানা বৃষ্টিতে নাজেহাল দশা শহরবাসীর

সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনেই সে কী বৃষ্টি। ছাতা মাথায় কোনওরকমে কাজের পথে হেঁটে নাকাল দশা। তারপর রাস্তায় জল। গাড়ি সারে সারে দাঁড়িয়ে। ট্রাফিক জ্যামে দীর্ঘক্ষণ ফেঁসে। ফোন, হোয়াটসঅ্যাপে তখন লেখা হচ্ছে, 'আজ যেতে একরটু দেরি হবে রে।' স্কুলগুলোতে কোথাও হাফ ছুটি, কোথাও আবার একটু আগে ছুটি। ছেলে-মেয়েকে আনতে গিয়ে মা-ও পুরো ভিজে গেল।

বালিগঞ্জ-কাণ্ডে নয়া তথ্য বালিগঞ্জ-কাণ্ডে নয়া তথ্য

বালিগঞ্জ-কাণ্ডে নতুন তথ্য। সানি পার্কের লনে আহত হওয়ার পর রক্তাক্ত অবস্থায় আবাসনের পার্কিং লট পর্যন্ত প্রায় কুড়ি মিটার হেঁটে গিয়েছিল আবেশ দাশগুপ্ত। বার্থ ডে পার্টিতে থাকা দুই ছাত্রী এবং এক ছাত্র পুলিসের কাছে এই দাবি করেছে। পার্কিং লটে পৌছে আবেশ মুখ থুবড়ে পড়ে যায় বলে জানিয়েছে তারা।

পুলিস তাঁকে গ্রেফতার করতে চাইছে, গ্রেফতারি আটকাতে হাইকোর্ট হস্তক্ষেপ করুক, আর্জি নারদ-কর্তা স্যামুয়েলের পুলিস তাঁকে গ্রেফতার করতে চাইছে, গ্রেফতারি আটকাতে হাইকোর্ট হস্তক্ষেপ করুক, আর্জি নারদ-কর্তা স্যামুয়েলের

নিম্ন আদালতে সমন জারি হওয়ার পর কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন নারদ-কর্তা ম্যাথু স্যামুয়েল। পুলিস তাঁকে গ্রেফতার করতে চাইছে। গ্রেফতার আটকাতে হাইকোর্ট হস্তক্ষেপ করুক। এই মর্মে প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে আর্জি জানিয়েছেন তিনি। আদালত তাঁকে লিখিতভাবে গোটা বিষয়টি জানাতে বলেছে। বুধবার ম্যাথুর আর্জির শুনানি হবে। পুলিস তলব করলেও দু-বার হাজিরা এড়িয়ে গেছেন ম্যাথু স্যামুয়েল।

সোনারপুরে পুকুর বিক্রিকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত 'প্রতিবাদী' সোনারপুরে পুকুর বিক্রিকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত 'প্রতিবাদী'

ফের আক্রান্ত প্রতিবাদী। সোনারপুরে বেআইনিভাবে পুকুর বিক্রির প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত হলেন গোপীনাথ হালদার নামে এক স্থানীয় বাসিন্দা। দুষ্কৃতীরা তাঁর বাড়িতে চড়াও হয়ে মারধর করে। আক্রান্ত হন গোপীনাথবাবুর স্ত্রী। সোনারপুর থানার খোয়াদহ দু-নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের রানাভুতিয়া গ্রামের ঘটনা।

সোনারপুরে পুকুর বোজানোকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত প্রতিবাদী সোনারপুরে পুকুর বোজানোকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত প্রতিবাদী

ফের আক্রান্ত প্রতিবাদী। সোনারপুরে বেআইনিভাবে পুকুর বিক্রির প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত হলেন গোপীনাথ হালদার নামে এক স্থানীয় বাসিন্দা। দুষ্কৃতীরা তাঁর বাড়িতে চড়াও হয়ে মারধর করে। আক্রান্ত হন গোপীনাথবাবুর স্ত্রী। সোনারপুর থানার খোয়াদহ দু-নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের রানাভুতিয়া গ্রামের ঘটনা।

প্রায় দেড় মাস পর কলকাতায় ফিরে এলেন জুডিথ ডিসুজা প্রায় দেড় মাস পর কলকাতায় ফিরে এলেন জুডিথ ডিসুজা

প্রায় দেড় মাস কাবুলে অপহরণকারীদের কবলে থাকার পর মুক্তি। সব চিন্তার অবসান। শেষ পর্যন্ত ঘরে ফিরল মেয়ে। কলকাতায় ফিরে এলেন জুডিথ ডিসুজা। সন্ধে ছ টা চল্লিশ নাগাদ দিল্লি থেকে দমদমে পৌছয় জুডিথের বিমান। সঙ্গে ছিলেন দাদা জেরোম ডিসুজা। সেখান থেকে কড়া নিরাপত্তায় সোজা এন্টালির বাড়িতে। সেখানে তখন বহু মানুষের ভিড়। জুডিথ বাড়ি ফেরায় মিষ্টিও বিতরণ করেন উত্সাহী জনতা। জুডিথদের দাদা জেরোম জানান, দুঃস্বপ্নের এই বিয়াল্লিশ দিন তাঁরা আর মনে রাখতে চাননা। এখন পরিবারের সদস্যরা একসঙ্গে সময় কাটাতে চান। জুডিথের শরীর ভাল নেই। তাঁকে চিকিত্সকরা বিশ্রামের পরামর্শ দিয়েছেন।

 সংগঠনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানের আগে তৃণমূল ছাত্র পরিষদকে কড়া বার্তা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সংগঠনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানের আগে তৃণমূল ছাত্র পরিষদকে কড়া বার্তা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের

সংগঠনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানের আগে তৃণমূল ছাত্র পরিষদকে কড়া বার্তা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। টিএমসিপির নেতা-কর্মীদের প্রতি তাঁর কড়া বার্তা, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখন আগের থেকেও অনেক বেশি কঠোর। ফলে কেউ কোনও অন্যায় করলে দল রেয়াত করবে না।

সম্পর্কের টানাপোড়েনের জেরেই কি খুন হল আবেশ দাশগুপ্ত? সম্পর্কের টানাপোড়েনের জেরেই কি খুন হল আবেশ দাশগুপ্ত?

সম্পর্কের টানাপোড়েনের জেরেই কি খুন হয়ে গেল আবেশ দাশগুপ্ত? প্রাথমিক তদন্তে তেমনই অনুমান পুলিসের। এক কিশোরীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা ঘিরে সম্ভবত বন্ধুর সঙ্গে গোলমাল চলছিল আবেশের। যার জেরে বচসা। আর তারপরই খুন। রহস্য জাল ভেদ করতে বন্ধুদের জেরার করার ওপরই ভরসা করছে পুলিস।

আবেশকে কে খুন করেছে তা এখন ওপেন সিক্রেট, কিন্তু তার শাস্তি নিয়ে উঠছে প্রশ্ন আবেশকে কে খুন করেছে তা এখন ওপেন সিক্রেট, কিন্তু তার শাস্তি নিয়ে উঠছে প্রশ্ন

বন্ধুবান্ধবদের মুখে কুলুপ। তবে শোনা যাচ্ছে আবেশেরই ছোটবেলার বন্ধু রাগের মাথায় খুন করেছে। সেই বন্ধুর বয়স ১৭। এই পরিস্থিতিতে কোন পথে এগোবে মামলা? কী বলছে আইন।