আতঙ্কের মহানগর, তিলজলায় ধর্ষিত চার বছরের শিশুকন্যা

চার বছরের এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল তপসিয়ায়। স্থানীয় মানুষ ধাওয়া করে অভিযুক্ত যুবককে ধরে ফেলেন। মারধরের পর তাকে তিলজলা থানার পুলিসের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নির্যাতিতা শিশুকন্যার চিকিত্সা চলছে।

Updated: Sep 16, 2013, 09:04 AM IST

চার বছরের এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল তপসিয়ায়। স্থানীয় মানুষ ধাওয়া করে অভিযুক্ত যুবককে ধরে ফেলেন। মারধরের পর তাকে তিলজলা থানার পুলিসের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নির্যাতিতা শিশুকন্যার চিকিত্সা চলছে।
তিলজলায় বোনের সম্ভ্রম বাঁচাতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের মারে জখম হয়েছেন তরুণীর তিন দাদা। এবার সেই তিলজলা লাগোয়া তপসিয়ায় চার বছরের এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। যার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ, সেই মহম্মদ ইমতিয়াজ এলাকারই ছেলে। অভিযোগ, রবিবার রাত আটটা নাগাদ চকোলেটের লোভ দেখিয়ে সে মেয়েটিকে বাড়ির সামনে থেকে নিয়ে যায়. একটু দূরে নিয়ে গিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ. স্থানীয় মানুষ মেয়েটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন।

ঘটনার পরই এলাকার মানুষ ধাওয়া করে ২২ বছরের ইমতিয়াজকে ধরে ফেলে। মারধরের পর তাকে তিলজলা থানার পুলিসের হাতে তুলে দেওয়া হয়। তিলজলা থানার পুলিস ইমতিয়াজকে গ্রেফতার করেছে। ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মেয়েটির চিকিত্সা চলছে। রবিবার তাকে দেখতে হাসপাতালে যান দমকলমন্ত্রী ও স্থানীয় বিধায়ক জাভেদ খান।  
 
নির্যাতনের পর শিশুকন্যাকে যখন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়, তখন তার শারীরিক অবস্থা যথেষ্ট সঙ্কটজনক ছিল। কিন্তু এখন তার শারীরিক অবস্থা কিছুটা হলেও স্থিতিশীল।