সিবিএসইতে যমজ বোনেরা পেল একই নম্বর

যমজ ভাইবোনদের সম্পর্কে কতই না জনশ্রুতি। তাদের একই সময়ে রাগ হয়। একই সময়ে খিদে পায়। এমনকি পেটব্যথা, সেটাও নাকি দুজনের একই সঙ্গে হয়। কিন্তু যমজ ভাইবোনদের পরীক্ষার নম্বরও যমজ, এমনটা কখনও শুনেছেন? এপিজে সল্টলেক স্কুলের ছাত্রী নম্রতা ও নমিতা বাগচি যমজ বোন। সিবিএসইর দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় দুজনেই ৯৭ শতাংশ নম্বর পেয়েছে।

Updated: May 27, 2013, 11:34 PM IST

যমজ ভাইবোনদের সম্পর্কে কতই না জনশ্রুতি। তাদের একই সময়ে রাগ হয়। একই সময়ে খিদে পায়। এমনকি পেটব্যথা, সেটাও নাকি দুজনের একই সঙ্গে হয়। কিন্তু যমজ ভাইবোনদের পরীক্ষার নম্বরও যমজ, এমনটা কখনও শুনেছেন? এপিজে সল্টলেক স্কুলের ছাত্রী নম্রতা ও নমিতা বাগচি যমজ বোন। সিবিএসইর দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় দুজনেই ৯৭ শতাংশ নম্বর পেয়েছে।
দুই বোনকে নিয়ে মাঝে মধ্যেই সমস্যায় পড়তেন এপিজে সল্টলেক স্কুলের শিক্ষিকারা। চট করে যে দেখে বুঝবেন, কে নম্রতা আর কে নমিতা, তার কোনও উপায় নেই।
 
যমজ দুই বোনের গর্বিত মা বললেন, `ওরা ভীষণ হ্যাপি কিডস`।
 
সোমবার প্রকাশিত হয়েছে সিবিএসইর দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার ফল। শতাংশের হিসেবে দুজনেই একই নম্বর পেয়েছে। সকাল থেকে শুভেচ্ছা। একের পর এক ফোন। বোনেরা কিন্তু বলছে, একে অপরের সাহায্য ছাড়া এমন ফল হোতই না।
 
এত ভাল রেজাল্ট তো হল। ভবিষ্যতে কী করা হবে? দুই বোনের ভবিষ্যত পরিকল্পনাও কিন্তু যমজ। যমজ বোনকে নিয়ে ক্লাসরুমে বিভ্রান্ত হয়েছেন শিক্ষিকারা। নম্রতা ও নমিতা ডাক্তার হলে, রোগীদেরও এক অবস্থা হবে না তো!

Tags: