রেল থেকে ট্রাইডেন্ট লাইট, তৃণমূলের বিরুদ্ধে সোচ্চার অধীর

তৃণমূলের হাতে থাকা রেলমন্ত্রকের বিরুদ্ধে এবার পথে নামল প্রদেশ কংগ্রেস। সাংসদ অধীর চৌধুরীর নেতৃত্বেই আজ শিয়ালদহে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন কংগ্রেসের নেতা-কর্মীরা। মূলত মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রিক দাবিদাওয়া হলেও, বিক্ষোভ দেখানোর জন্য বেছে নেওয়া হয় কলকাতাকে।

Updated: Jul 30, 2012, 01:42 PM IST

তৃণমূলের হাতে থাকা রেলমন্ত্রকের বিরুদ্ধে এবার পথে নামল প্রদেশ কংগ্রেস। সাংসদ অধীর চৌধুরীর নেতৃত্বেই আজ শিয়ালদহে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন কংগ্রেসের নেতা-কর্মীরা। মূলত মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রিক দাবিদাওয়া হলেও, বিক্ষোভ দেখানোর জন্য বেছে নেওয়া হয় কলকাতাকে।
সোমবার বেলা ১১টা নাগাদ শিয়ালদহে শুরু হয় বিক্ষোভ কর্মসূচি। দুপুর ১২টা নাগাদ সভায় উপস্থিত হন অধীর চৌধুরী। সমাবেশ-মঞ্চ থেকে শরিক দলের রেলমন্ত্রক পরিচালনা নিয়ে এদিন সরব হন বহরমপুরের কংগ্রেস সাংসদ। তাঁর বক্তব্য, রেল থেকে রাজ্য পরিচালনা, সবেতেই ব্যর্থ তৃণমূল কংগ্রেস। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশাপাশি এই ইস্যুতে রেলমন্ত্রী মুকুল রায়েরও কড়া সমালোচনা করেছেন মুর্শিদাবাদ জেলা কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী।
রেল মন্ত্রক পরিচালনায় তৃণমূলের ব্যর্থতার পাশাপাশি শহরের ত্রিফলা আলো নিয়ে এবার রাজ্য সরকার এবং কলকাতা পুরসভার কড়া সমালোচনা করেন অধীর চৌধুরী। শিয়ালদায় এক জনসভায় তিনি বলেন, শহরে প্রায় ৪০ শতাংশেরও বেশি মানুষের বাস বস্তিতে। কেন্দ্রীয় সরকার বস্তি উন্নয়নের জন্য টাকা দিলেও, উন্নয়নের কাজ না করে সৌন্দর্য্যায়নের নামে সরকারি অর্থ নয়ছয় করা হচ্ছে বলে তাঁর অভিযোগ। ত্রিফলা আলো নিয়ে অবিলম্বে শ্বেতপত্র প্রকাশেও দাবি জানান বহরমপুরের কংগ্রেস সাংস অধীর চৌধুরী।  একই সঙ্গে শহরজুড়ে নীল-সাদা রঙ করা নিয়েও সরকার ও পুরসভাকে তীব্র আক্রমণ করেন তিনি।