রাজ্য মন্ত্রিসভায় রদবদল, ডানা ছাঁটা হল পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের, শিল্প দফতরের দায়িত্ব বর্তালো অমিত মিত্রের উপর, নতুন পূর্তমন্ত্রী শঙ্কর চট্টোপাধ্যায়

ডানা ছাঁটা হল পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। শিল্প দফতর হাতছাড়া হল তাঁর। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে এখন থেকে অর্থ দফতরের সঙ্গে শিল্প দফতরের দায়িত্বও সামলাবেন অমিত মিত্র। তবে, তথ্য-প্রযুক্তি ও পরিষদীয় দফতর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের হাতেই থাকছে। সুদর্শন ঘোষদস্তিদারকে মন্ত্রিসভা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তাঁর হাতে ছিল পূর্ত ও পরিবেশ দফতরের ভার। নতুন পূর্তমন্ত্রী হলেন শঙ্কর চক্রবর্তী। পরিবেশ দফতরের দায়িত্ব পেলেন উপেন বিশ্বাস।

Updated: Dec 26, 2013, 03:15 PM IST

ডানা ছাঁটা হল পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। শিল্প দফতর হাতছাড়া হল তাঁর। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে এখন থেকে অর্থ দফতরের সঙ্গে শিল্প দফতরের দায়িত্বও সামলাবেন অমিত মিত্র। তবে, তথ্য-প্রযুক্তি ও পরিষদীয় দফতর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের হাতেই থাকছে। সুদর্শন ঘোষদস্তিদারকে মন্ত্রিসভা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তাঁর হাতে ছিল পূর্ত ও পরিবেশ দফতরের ভার। নতুন পূর্তমন্ত্রী হলেন শঙ্কর চক্রবর্তী। পরিবেশ দফতরের দায়িত্ব পেলেন উপেন বিশ্বাস।

মঙ্গলবার রাত থেকে জল্পনা তুঙ্গে ছিল রাজ্যমন্ত্রিসভায় রদবদল নিয়ে। অবশেষে বড়দিনের রাতেই মন্ত্রিসভায় রদবদল নিয়ে সব জল্পনার জবাব এল। এই প্রথমবার তৃণমূল কংগ্রেসের ওয়েবসাইটে জানানো হল মন্ত্রিসভায় জায়গা পেতে চলা তিনটি নতুন মুখের নাম।

নতুন মন্ত্রী হলেন শ্যামপুকুরের বিধায়ক শশী পাঁজা। স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী হচ্ছেন বর্ধমান জেলা তৃণমূলের গ্রামীন সভাপতি স্বপন দেবনাথ। শারীরিক অসুস্থতার কারণে হিতেন বর্মণ মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দিচ্ছেন বলে জানানো হয়েছে তৃণমূলের ওয়েবসাইটে।

চব্বিশ ঘণ্টার খবরে আমরা দেখিয়েছিলাম নতুন মন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে সবথেকে এগিয়ে রয়েছেন শ্যামপুকুরের বিধায়ক শশী পাঁজা। এর আগেও বহুবার শশী পাঁজার নাম মন্ত্রী হওয়ার জন্য বিবেচিত হয়েছে ।

শারীরিক কারণে হিতেন বর্মণ ইস্তফা দিচ্ছেন বলে জানানো হয়েছে। যদিও হিতেন বর্মণের কাজে মোটেই খুশি ছিলেন না মুখ্যমন্ত্রী। তাঁকে মন্ত্রিসভা থেকে ছেঁটে ফেলা হতে পারে বলেও জল্পনা ছিল তুঙ্গে। তাঁর জায়গায় মন্ত্রী হলেন মাথাভাঙার বিধায়ক বিনয় বর্মণ।

বামেদের শক্ত ঘাঁটি বর্ধমানে পঞ্চায়েতে ভাল ফল করেছে তৃণমূল। তার পুরস্কার স্বরূপ এবার স্বাধীনদায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং মুকুল রায় ঘনিষ্ঠ বর্ধমান জেলা গ্রামীনের তৃণমূল সভাপতি স্বপন দেবনাথ।