সেরার লড়াই নয়, প্রতিভার স্বীকৃতিতে আলোকিত হয়ে উঠল ২৪ ঘণ্টা অনন্য সম্মান ১৪২০-এর মঞ্চ

অনন্য সম্মান ১৪২০। প্রথিতযশা মানুষদের পাশাপাশি, যাঁরা সবার অলক্ষ্যে আমাদের সম্পন্ন করে চলেছেন তাঁদেরও বহির্বিশ্বের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার একটি জানালা। যাঁদের মুখ ক্যামেরায় ধরা পড়ে না। আপাত অন্ধকারের নীচে সেই আলোকবৃত্তের অনন্য সাধারণদের সম্মানিত করতে পেরে গর্বিত ২৪ ঘণ্টা।

Updated: Mar 21, 2014, 10:15 AM IST

অনন্য সম্মান ১৪২০। প্রথিতযশা মানুষদের পাশাপাশি, যাঁরা সবার অলক্ষ্যে আমাদের সম্পন্ন করে চলেছেন তাঁদেরও বহির্বিশ্বের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার একটি জানালা। যাঁদের মুখ ক্যামেরায় ধরা পড়ে না। আপাত অন্ধকারের নীচে সেই আলোকবৃত্তের অনন্য সাধারণদের সম্মানিত করতে পেরে গর্বিত ২৪ ঘণ্টা।

বহু আশ্চর্য চরিত্রের জন্ম দিয়েছেন তিনি। জীবন, সমাজ থেকে উঠে আসা সেই সব চরিত্রদের আরও রঙিন করে আমাদের ফিরিয়ে দিয়েছেন। আমাদের চেনা প্রকৃতি তাঁর স্পর্শে হয়ে উঠেছে আরও বর্ণময়। সেই প্রখ্যাত সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহকে অনন্য সম্মানে সম্মানিত করে গর্বিত ২৪ ঘণ্টা।

উনিশশো সাতাত্তরের চব্বিশে সেপ্টেম্বর। ইডেনে খেলতে নেমেছিলেন ফুটবল সম্রাট পেলে। সেদিন মোহনবাগানের ডিফেন্ডার হিসেবে বারবার পেলের বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন সুব্রত ভট্টাচার্য। ফুটবলার হিসেবে বহু কীর্তি গড়েছেন তিনি। পেয়েছেন অর্জুন পুরস্কার। পাশাপাশি কোচ হিসেবেও দারুণ সফল। কিংবদন্তী এই ফুটবলারকে ২৪ ঘণ্টার অনন্য সম্মান।

বাড়ির নাটমন্দিরে শুরু হয়েছিল তাঁর অভিনয় জীবন। তারপর পারিবারিক অভিনয়ের গণ্ডি পেরিয়ে গণনাট্যসঙ্ঘ। উনিশশো বাহাত্তরে নিজের দল চেতনা। মারীচ সংবাদ, জগন্নাথ, পুতুল নাচের ইতিকথা। একের পর এক সফল নাটক উপহার দিয়েছেন অরুণ মুখোপাধ্যায়। মৃণাল সেনের পরশুরাম ছবিতে অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন সেরা জাতীয় অভিনেতার পুরস্কার। অসামান্য নাট্যকার, অভিনেতা অরুণ মুখোপাধ্যায়কে চব্বিশ ঘণ্টার অনন্য সম্মান।

সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক স্তরে বিজ্ঞান চর্চা করেছেন। কিন্তু তিনি গজদন্ত মিনারে বাস করেন না। শুধুই শুষ্ক বিজ্ঞানচর্চায় উত্সাহ নেই বিকাশ সিংহের।সাধারণ মানুষের কাছে বিজ্ঞানের সুফল সরাসরি পৌছে দেওয়াতেই বিশ্বাস করেন তিনি। বার্কের ভেরিয়েবল এনার্জি সাইক্লোট্রন সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা পদার্থ বিজ্ঞানী বিকাশ সিংহকে চব্বিশ ঘণ্টার অনন্য সম্মান।

হাওড়ার রাখির ব্যবসা দিয়ে শুরু হয়েছিল দুই বন্ধুর পথচলা। একসময় পা রাখা বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে। শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ দিয়ে শুরু। তারপর