সারদা কাণ্ডে ইডি-এর জেরার মুখে তৃণমূলের বালুরঘাটের প্রার্থী অর্পিতা ঘোষ, জামিন মিললেও মুক্তি পেলেন না সুদীপ্ত সেনের স্ত্রী

Last Updated: Friday, April 25, 2014 - 19:33

সারদা-কাণ্ডে বালুরঘাটের তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষকে জেরা করছে ইডি। সারদা-কাণ্ডের তদন্তে তাঁকে সমন পাঠানো হয়েছিল। শাসকদলের ঘনিষ্ঠ এক চিত্রশিল্পীকেও তলব করতে পারে ইডি। তদন্তে, ইডি জানতে পেরেছে বাজার দরের চেয়ে বেশি দামে ওই চিত্রশিল্পী সুদীপ্ত সেনকে টিভি চ্যানেল বিক্রি করেন। সেই চ্যানেলেই কাজ করতেন অর্পিতা ঘোষ।

তদন্তে নেমে ইতিমধ্যেই এক প্রাক্তন পুলিসকর্তাকে জেরা করেছে ইডি। সারদার কর্মী, ডিজি পদমর্যাদার ওই প্রাক্তন পুলিসকর্তা সংস্থায় কার্যত ডিরেক্টরের ভূমিকা পালন করতেন। পুলিসের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন তিনি। ওই প্রাক্তন পুলিসকর্তাকে জেরায় সন্তুষ্ট নন ইডি-র আধিকারিকরা। তার ভিত্তিতে এবার আরও কয়েকজনকে সমন পাঠাতে পারেন তাঁরা। গতকাল, সল্টলেকে সুদীপ্ত সেনের ফ্ল্যাটে তল্লাসি চালায় ইডি। উদ্ধার হয় দলিলের ছেঁড়া পাতা। সেগুলি, সারদার সম্পত্তির দলিল হতে পারে বলে মনে করছে ইডি। সুদীপ্ত সেনের ছেলে শুভজিত সেনকে জেরা করে তাঁর কয়েকজন বন্ধুর খোঁজ পেয়েছে ইডি। জানা গেছে, ওই বন্ধুদের মাধ্যমে টাকা খাটাতেন শুভজিত। এ বিষয়ে খোঁজখবর করতে দক্ষিণ কলকাতার বিভিন্ন জায়গায় তল্লাসি চালান ইডি-র আধিকারিকরা।

সারদাকাণ্ডে যোগ রয়েছে মৃত আইনজীবী পিয়ালি মুখার্জির। ইডির তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য। সংস্থার আইনি দিক দেখতেন পিয়ালি। তাঁর ভূমিকা খতিয়ে দেখছে ইডি। তদন্তে উঠে আসতে পারে পিয়ালীর অস্বাভাবিক মৃত্যুর বিষয়টিও।অন্যদিকে, জামিন পেলেন সুদীপ্ত সেনের স্ত্রী। তবে প্রয়োজনীয় অর্থ জমা দিতে না পারার দরুণ আজ মুক্তি পেলেন না তিনি। ৩০ তারিখ অবধি জেল হেফাজত হয়েছে সুদীপ্ত সেনের পুত্র শুভজিতের।

আজ আদালতে তোলা হল সুদীপ্ত সেনের ছেলে শুভজিত্‍ সেন ও সুদীপ্ত সেনের স্ত্রী পিয়ালি সেনকে। আজ তাদের ব্যঙ্কশাল কোর্টে তোলা হয়। পিয়ালি ও শুভজিত্‍ সেন দুজনেই আদালতে জামিনের আবেদন জানান। পিয়ালির আইনজীবী বলেন পিয়ালির দুই সন্তান রয়েছে,তার জামিনের আর্জি মঞ্জুর করা হোক। এরপর ইডি পিয়ালির জামিনের বিরোধিতা করেনি। তবে শুভজিত্‍ সেনের জামিনের বিরোধিতা করেছে। শুভজিত্‍ সেনের দুদিনের জেল হেফাজত চেয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট।



First Published: Friday, April 25, 2014 - 19:33


comments powered by Disqus