বাদ বুদ্ধ, থেকে গেলেন গৌতম

আশিজনের নতুন রাজ্য কমিটিতে এবার আঠারো জন নতুন মুখ। বাদ পড়েছেন কুড়িজন।

Updated: Mar 8, 2018, 06:30 PM IST
বাদ বুদ্ধ, থেকে গেলেন গৌতম

নিজস্ব প্রতিবেদন : সিপিএম রাজ্য কমিটি থেকে বাদ গেলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। অসুস্থতার জন্য তিনি অব্যাহতি চাওয়ায় সায় দিয়েছে দল। মাঠে-ময়দানে যাওয়া অনেকদিনই ছেড়ে দিয়েছিলেন। এবার বঙ্গ সিপিএমে নিজের পদও ছেড়ে দিলেন তিনি। আশিজনের নতুন রাজ্য কমিটিতে এবার আঠারো জন নতুন মুখ। বাদ পড়েছেন কুড়িজন।

গত আড়াই বছর দিল্লিতে দলের বৈঠকে যাননি বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। এমনকি কলকাতায় গত কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকেও অনুপস্থিত ছিলেন তিনি। চোখে সমস্যা, শ্বাস নিতে কষ্ট। অসুস্থতার জন্য এ বার সিপিএমের রাজ্য সম্মেলনেও মাত্র দু-দিন দু-ঘণ্টার জন্য যান প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। এবার নতুন রাজ্য কমিটি গঠনের আগেই দলকে চিঠি দেন তিনি।

আরও পড়ুন, 'হাত' ছেড়ে 'ঘাসফুল'-এ কান্দির বিধায়ক অপূর্ব সরকার

চিঠিতে অসুস্থতার কারণে রাজ্য কমিটি থেকে অব্যাহতি চান বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। জানান, আমন্ত্রিত সদস্য হয়েও তিনি আর রাজ্য কমিটিতে থাকতে চান না। বুদ্ধবাবুর চিঠি পেয়ে সীতারাম ইয়েচুরি-প্রকাশ কারাটরা ফোনে কথা বলে তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করেন। তবে, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থাকায় শেষপর্যন্ত তাঁকে রাজ্য কমিটি থেকে বাদই দেয় দল।

সিপিএমের অন্দরের খবর ইয়েচুরি-কারাটরা বুদ্ধদেবকে বলেন দলের খারাপ সময়ে তিনি একেবারেই সরে গেলে খারাপ বার্তা যাবে। তাঁদের অনুরোধে শেষপর্যন্ত রাজ্য কমিটিতে আমন্ত্রিত সদস্য হিসাবে থেকে যেতে রাজি হন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। রাজনৈতিক মহল বলছে, পদে থেকেও গত কয়েকবছর দলীয় বৈঠক-মাঠের রাজনীতি কোথাও বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে দেখা যায়নি। এবার রাজ্য কমিটি থেকে সরে গিয়ে কার্যত সক্রিয় রাজনীতি থেকে অবসরই নিয়ে নিলেন তিনি।

আরও পড়ুন, দুগ্ধাভিষেক ঘিরে ধুন্ধুমার, কেওড়াতলা মহাশ্মশানে বিজেপি-তৃণমূলের সংঘর্ষ

গত প্লেনামেই রাজ্য কমিটিতে থাকার জন্য বয়সের উর্ধ্বসীমা পঁচাত্তরে বেঁধে দেওয়া হয়। বয়সের কারণে সিপিএম রাজ্য কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন শ্যামল চক্রবর্তী, মদন ঘোষ, দীপক সরকার, দীপক দাশগুপ্তর মতো নেতারা। তবে বয়স হলেও ব্যতিক্রম হিসাবে রাজ্য কমিটিতে থাকছেন বিমান বসু। অন্যদিকে, অসুস্থতার কারণে বাদ পড়ার কথা শোনা গেলেও সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রর জোরালো সওয়ালে রাজ্য কমিটিতে রয়ে গেলেন গৌতম দেব।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close