আদালতে তোলা হল সুদীপ্ত সেনের স্ত্রী, ছেলেকে, ফের সিবিআই তদন্তের সওয়াল বুদ্ধদেবের

আজ আদালতে তোলা হল সুদীপ্ত সেনের ছেলে শুভজিত্‍ সেন ও স্ত্রী পিয়ালি সেনকে। এ দিন তাদের ব্যঙ্কশাল কোর্টে তোলা হয়। পিয়ালি ও শুভজিত্‍ সেন দুজনেই আদালতে জামিনের আবেদন জানান। পিয়ালির আইনজীবী বলেন, পিয়ালির দুই সন্তান রয়েছে,তার জামিনের আর্জি মঞ্জুর করা হোক। এরপরই ইডি পিয়ালির জামিনের বিরোধিতা করেনি। তবে শুভজিত্‍ সেনের জামিনের বিরোধিতা করেছে। তার দুদিনের জেল হেফাজত চেয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট।

Updated: Apr 25, 2014, 02:50 PM IST

আজ আদালতে তোলা হল সুদীপ্ত সেনের ছেলে শুভজিত্‍ সেন ও স্ত্রী পিয়ালি সেনকে। এ দিন তাদের ব্যঙ্কশাল কোর্টে তোলা হয়। পিয়ালি ও শুভজিত্‍ সেন দুজনেই আদালতে জামিনের আবেদন জানান। পিয়ালির আইনজীবী বলেন, পিয়ালির দুই সন্তান রয়েছে,তার জামিনের আর্জি মঞ্জুর করা হোক। এরপরই ইডি পিয়ালির জামিনের বিরোধিতা করেনি। তবে শুভজিত্‍ সেনের জামিনের বিরোধিতা করেছে। তার দুদিনের জেল হেফাজত চেয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট।

সারদা কাণ্ডের তল্লাসিতে বিধাননগর পুলিসের ভূমিকা নিয়ে উঠতে শুরু করেছে হাজারও প্রশ্ন। বৃহস্পতিবার সুদীপ্ত সেনের সল্টলেকের ফ্ল্যাটে তল্লাসি চালায় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের তদন্তকারী দল। তল্লাসি চালিয়ে ওই ফ্ল্যাট থেকে তাঁরা বহু গুরুত্বপূর্ণ নথি এবং ছবি উদ্ধার করে। সারদা কর্তার এই ফ্ল্যাটটি গত এক বছর ধরে বিধাননগর পুলিসের হেফাজতে রয়েছে। প্রশ্ন তাহলে কেন এতদিন ওই ফ্ল্যাটের তল্লাসি চালায়নি পুলিস? আর যদি তল্লাসি চালিয়ে থাকে তাহলে কেন তাঁরা এই সমস্ত নথি ও ছবি উদ্ধার করতে পারল না?

অন্যদিকে, ফের সারদাকাণ্ডে সিবিআই তদন্তের সওয়াল করলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। প্রেস ক্লাবে এ দিন তিনি বলেন, "সিবিআই তদন্ত হলেই সব কিছু স্পষ্ট হয়ে যাবে। বামেদের কিছু গোপন করার নেই। যাঁদের গোপন করার আছে, তাঁরাই অজুহাত খুঁজছেন।"

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close