ভাড়া না বাড়াতেই বেহাল বাস, প্রাণ হাতে করে যাতায়াত

পথ নিরাপত্তার সপ্তাহেই শহরের বুকে একের পর এক পথ দুর্ঘটনা। পর পর মৃত্যু। কার্যত প্রহসনে পরিণত হয়েছে পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ। দুর্ঘটনার সম্ভাব্য কারণ খুঁজতে গিয়ে প্রথমে উঠে আসছে বেহাল বাসের কথা। পরিচর্যার অভাবে বেশিরভাগ বাসেরই অবস্থা সঙ্গিন।

Updated: Jan 12, 2018, 03:12 PM IST
ভাড়া না বাড়াতেই বেহাল বাস, প্রাণ হাতে করে যাতায়াত

নিজস্ব প্রতিবেদন : পথ নিরাপত্তার সপ্তাহেই শহরের বুকে একের পর এক পথ দুর্ঘটনা। পর পর মৃত্যু। কার্যত প্রহসনে পরিণত হয়েছে পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ। দুর্ঘটনার সম্ভাব্য কারণ খুঁজতে গিয়ে প্রথমে উঠে আসছে বেহাল বাসের কথা। পরিচর্যার অভাবে বেশিরভাগ বাসেরই অবস্থা সঙ্গিন।

বয়সের ভারে খোলনলচে বেরিয়ে গেছে বাসগুলির। কোনও বাসের জানলার কাঁচ ভাঙা। কোথাও পরিচর্যার অভাবে বেহাল টায়ার। অধিকাংশ বাসেই চারটে চাকার মধ্যে তিনটে-তেই হয়তো রয়েছে বিপজ্জনক রিসোল টায়ার। এখন অনেকসময়ই রিসোল টায়ারে ব্রেক ঠিকমত ধরে না। বৃহস্পতিবার খন্না মোড়ে দুর্ঘটনার পিছনেও মূল কারণ এই রিসোল টায়ার। কিন্তু এতকিছুর পরেও বাস মালিকদের কোনও ভ্রূক্ষেপ নেই বলে অভিযোগ।

যাত্রীদের অভিযোগ, প্রাণের ঝুঁকি নিয়েই গন্তব্যে যাতায়াত করতে হয়। ইচ্ছেমত যেখানে সেখানে দাঁড় করিয়ে লাগামছাড়াভাবে যাত্রী তোলে বাসগুলি। এরপর যদি পিছনে একই রুটের কোনও বাস চলে আসে, তখনই শুরু হয় রেষারেষি। আরও অভিযোগ, অধিকাংশ বাসেরই সিএফ সার্টিফিকেট নেই। বাসগুলির কোনও পরিচর্যা হয় না।

আরও পড়ুন, ইঞ্জিনিয়ারদের পরামর্শে ভাঙা হল মা উড়ালপুলের ডিভাইডারে ঢাউস ফুলের টবগুলি

এদিকে বেহাল বাস নিয়ে সব অভিযোগের জবাব দিতে গিয়ে সরকারকেই নিশানা করেছেন বেসরকারি বাস মালিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা। তাঁদের স্পষ্ট জবাব, গত কয়েক বছরে বাসের ভাড়া বাড়ায়নি সরকার। কিন্তু গত কয়েক বছরে সবকিছুরই বাজারমূল্য বেড়েছে। বাস চালানোই কঠিন হয়ে পড়ছে দিনদিন। সেকারণেই বাড়ছে বেহাল বাসের সংখ্যা বাড়ছে। যদিও এবিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close