ফের মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে কার্টুন বিতর্ক, থানায় অভিযোগ ছাত্রের বিরুদ্ধে

Last Updated: Friday, January 18, 2013 - 13:57

কার্টুনকাণ্ডে অম্বিকেশ মহাপাত্র কিংবা মুম্বইয়ের দুই তরুনীকে গ্রেফতারের ঘটনার রেশ এখনও কাটেনি। ফের ফেসবুকে  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জড়িয়ে কার্টুন দেওয়ায় বিধাননগর সরকারি কলেজের এক ছাত্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হল। ওই কার্টুনে মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে কুত্‍সা ছড়ানোর অপচেষ্টা হয়েছে বলে বিধাননগর উত্তর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তৃণমূল ছাত্রপরিষদের নেতা শুভক্ষণ দত্ত।
সাত জানুয়ারি মজা করেই ফেসবুকে এই কার্টুনটি শেয়ার করেছিলেন বিধাননগর কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ইতিহাস অনার্সের ছাত্র রামনয়ন চৌধুরী। সতেরো জানুয়ারি তিনি জানতে পারেন বিধাননগর উত্তর থানায় তাঁর নামে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। জেনারেল ডায়েরিতে তাঁর বিরুদ্ধে  অভিযোগ করা হয়েছে, ওই কার্টুনে মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে কুত্‍সা ছড়ানোর অপচেষ্টা করেছেন তিনি।
কিন্তু হঠাত্‍ কেন তাঁর বিরুদ্ধেই এমন অভিযোগ? রামনয়ন চৌধুরী এসএফআই সমর্থক বলে কলেজে পরিচিত। বিরোধী ছাত্র রাজনীতির সমর্থক বলেই তাঁর নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে মনে করছে এসএফআই। ঘটনাটি নিয়ে সরব হয়েছে এসএফআই।
এর আগে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ব্যঙ্গচিত্র শেয়ার করে রাজরোষে পড়তে হয়েছে একাধিক জনকে। যার জ্বলন্ত উদাহরণ, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অম্বিকেশ মহাপাত্র। মুখ্যমন্ত্রীর ব্যঙ্গচিত্র শেয়ার করে হেনস্থার শিকার হতে হয়েছিল তাঁকেও। শুধু এরাজ্য নয়, এমন ঘটনা ঘটেছে ভিনরাজ্যেও। বালাসাহেব ঠাকরের অন্ত্যেষ্টির দিন জনজোয়ারে মুম্বইয়ের রাজপথ স্তব্ধ হয়ে যাওয়া নিয়ে ফেসবুকে মন্তব্য করে মহারাষ্ট্র সরকারের বিরাগভাজন হন দুই তরুণী। কী বলছেন ভুক্তভোগী অম্বিকেশ মহাপাত্র?
দুই তরুণীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ায় মহারাষ্ট্রে অভিযুক্ত পুলিস অফিসাররা এখন শাস্তির মুখে। কিন্তু অম্বিকেশ মহাপাত্রের ক্ষেত্রে উল্টে জরিমানা দিতে হয়েছিল তাঁকেই। বিধাননগর কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রামনয়ন চৌধুরী কি রেহাই পাবেন?



First Published: Friday, January 18, 2013 - 18:30


comments powered by Disqus