শিশুমৃত্যুর ঘটনায় গাফিলতির অভিযোগ উঠল হাসপাতালের বিরুদ্ধে

Last Updated: Monday, February 6, 2012 - 18:32

চিকিত্সায় গাফিলতিতে শিশুমৃত্যুর অভিযোগ উঠল ই এম বাইপাসের একটি বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে। মৃত শিশুর নাম ঋতপ্রভা ঘোষ।
সরস্বতী পুজোর দিন প্রদীপের আগুনে শরীরের নীচের অংশ পুড়ে যায় চারুমার্কেট থানার সুলতান আলম রোডের বাসিন্দা ৬ বছরের ঋতপ্রভার। এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিত্সকরা জানান ২৫ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে ঋতপ্রভার। সেদিনই সন্ধ্যায় মুকুন্দপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে মেয়েকে ভর্তি করেন পেশায় কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার জয়ন্ত ঘোষ। অভিযোগ বার্ন ইউনিট না থাকার কথা তখন জানাননি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। প্লাসটিক সার্জন না থাকায় দুদিন ধরে ড্রেসিং করা হয়নি বলে অভিযোগ তুলেছেন ঋতপ্রভার আত্মীয়রা। সোমবার সকাল ১০ টা ৫০ মিনিটে হাসপাতালের তরফে ঋতপ্রভার মৃত্যুর খবর জানানো পরই হাসপাতালে বিক্ষোভ দেখায় পরিবার। পরিস্থিতি সামলাতে হাসপাতালে পৌঁছয় বিশাল পুলিস বাহিনী। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও শিশু চিকিত্সক অশোক মিত্তলের বিরুদ্ধে পূর্ব যাদবপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে ঋতপ্রভার পরিবার।
 

ঋতপ্রভার মা শ্রীপর্ণা ঘোষের অভিযোগ, ঠিকমত চিকিত্‍সা পেলে সুস্থ হয়ে যেত ঋতপ্রভা। কিন্ত হাসপাতাল কার্যত বিনা চিকিত্‍য়সায় মেরে ফেলেছে। অন্যদিকে ঋতপ্রভার বাবার বক্তব্য, চিকিত্‍সার জন্য তাঁর কাছে ৫ থেকে ৬ লক্ষ টাকা করে দাবি করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। যদিও তাদের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাদের বক্তব্য, যথাযথ চিকিত্‍সা হয়েছে শিশুটির। তার শরীরের অবস্থা পরিরারকে জানানোও হয়েছে। হাই রিস্কে পরিবারের কনসেন্ট নিয়েই তাঁরা যাবতীয় চিকিত্‍সা চালিয়েছেন বলে দাবি করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।



First Published: Monday, February 6, 2012 - 19:08


comments powered by Disqus