গার্ডেনরিচ কাণ্ডের তদন্তভার সিআইডিকে

Last Updated: Thursday, February 14, 2013 - 20:20

গার্ডেনরিচ কাণ্ডের তদন্তের দায়িত্ব সিআইডিকে দিয়েছে রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশেই রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থাকে এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। দায়িত্ব পেয়ে রাতেই গার্ডেনরিচ থানায় পৌঁছন সিআইডির হোমিসাইড শাখার অফিসাররা। থানা থেকে এই মামলার যাবতীয় নথি বুঝে নেন তাঁরা। এই মামলায় অভিযুক্তদের নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার জন্য আগামিকালই আদালতে আবেদন জানাবে সিআইডি।
এর আগে গার্ডেনরিচ কাণ্ডের তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হল সিআইডিকে। বিরোধী নেত্রী থাকাকালীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনেক ঘটনাতেই সিবিআই তদন্ত দাবি করতেন। কিন্তু দুষ্কৃতীর গুলিতে পুলিস কর্মীর মৃত্যুর মত এত বড় ঘটনার তদন্তভার দেওয়া হল সিআইডিকে। এতে পুলিস কর্মীদের মনোবলে চিড় ধরবে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞমহল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ঘটনায় যাদের নাম এফআইআর-এ রয়েছে তাদের এখনও কেন গ্রেফতার করা হয়নি। এজন্যই কমিশনারকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল।
এর আগে সরানো হয় কলকাতার পুলিশ কমিশনার আর কে পচনন্দাকে৷ তাঁর জায়গায় নতুন পুলিশ কমিশনার আনা হয় এডিজি (আইনশৃঙ্খলা) সুরজিত্ কর পুরকায়স্থকে৷ সূত্রের খবর, গার্ডেনরিচ কাণ্ডে পচনন্দার কঠোর অবস্থান পছন্দ না হওয়ায় তাকে সরিয়ে দেওয়া হল৷ এফআইআরে তৃণমূল নেতা মহম্মদ ইকবাল ওরফে মুন্নার নাম রাখা নিয়ে বিরোধের সূত্রপাত। পাশপাশি, তাঁকে গ্রেফতার করতে পচনন্দার তত্পরতাও ভালো চোখে নেয়নি সরকার। এজন্য তাঁকে কার্যত গুরুত্বহীন এডিজি (সিকিউরিটি) পদে বদলি করা হয়েছে।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক পুলিসে রদবদল--
পুলিস কমিশনার
এলেন-সুরজিত্‍ পুরকায়স্থ। গেলেন-- রঞ্জিত কুমার পচনন্দা
এডিজি
বাণীব্রত বসু

আইজি আইন শৃঙ্খলা
সোমেন মিত্র

রঞ্জিত কুমার পচনন্দা
ছিলেন পুলিস কমিশনার। হলেন-- এডিজি (সিকিউরিটি), মুখ্যমন্ত্রীর সিকিউরিটি।



First Published: Thursday, February 14, 2013 - 23:13


comments powered by Disqus