কেন্দ্রের অনুমতি ছাড়াই বিতর্ক উসকে রিজেনারেটিভ চিকিত্সার ব্লাড ব্যাঙ্ক উদ্বোধন মুখ্যমন্ত্রীর

Last Updated: Thursday, February 20, 2014 - 22:54

কেন্দ্রীয় সংস্থার অনুমতি ছাড়াই রিজেনারেটিভ চিকিত্সায় আরও একধাপ এগোল রাজ্য সরকার। তার জন্য কর্ড ব্লাড ব্যাঙ্কের উদ্বোধনও সেরে ফেললেন মুখ্যমন্ত্রী। অথচ অনুমতি ছাড়া এধরনের গবেষণা পুরোপুরি বেআইনি।

সবচেয়ে বিপজ্জনক মানব শরীরে ওষুধ প্রয়োগ করে পরীক্ষানিরীক্ষা চালানো। তবু নির্বিকার রাজ্য। বিতর্ক আগে থেকেই ছিল। বৃহস্পতিবার তা আরও বাড়িয়ে দিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী। স্কুল অফ ট্রপিক্যাল মেডিসিনে কর্ড ব্লাড ব্যাঙ্কের উদ্বোধন করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী গর্বের সঙ্গে একথা ঘোষণা করলেও, বাস্তব পুরো অন্য কথা বলছে। মুখ্যমন্ত্রী যে কর্ড ব্লাড ব্যাঙ্কের উদ্বোধন করলেন, তা মূলত রিজেনারেটিভ মেডিসিন সংক্রান্ত চিকিত্সা ও গবেষণার জন্য। কিন্তু যে দুই কেন্দ্রীয় সংস্থা এই সংক্রান্ত গবেষণা এবং মানব শরীরে পরীক্ষানিরীক্ষার অনুমতি দেয়, তাদের একটিরও অনুমতি রাজ্য এখনও পায়নি।

রিজেনারেটিভ চিকিত্সা সংক্রান্ত গবেষণার জন্য ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ সংস্থার অনুমতি লাগে। এই চিকিত্সায় মানব শরীরে যেসব ওষুধ প্রয়োগ করে পরীক্ষানিরীক্ষা চালানো হয়, তার জন্য ড্রাগ কন্ট্রোল জেনারেল অফ ইন্ডিয়ার অনুমতি লাগে। কিন্তু অনুমতি যে নেই, ডিরেক্টর অফ মেডিক্যাল এডুকেশন সুশান্ত বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যে তা স্পষ্ট।

কেন্দ্রীয় সংস্থার অনুমতি ছাড়াই কেন এধরনের পরীক্ষানিরীক্ষা চলছে, গত ছয়ই ডিসেম্বর তা নিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন দুই চিকিত্সক। ৬ জানুয়ারি হাইকোর্টে ওই মামলার শুনানি হয়। ৬ মার্চের মধ্যে রাজ্য সরকারকে হলফনামা জমা দিতে বলে হাইকোর্ট। এসবের মাঝে মুখ্যমন্ত্রী বৃহস্পতিবার কর্ড ব্লাড ব্যাঙ্কের উদ্বোধন করায় বিতর্ক আরও বাড়ল। মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, রিজেনারেটিভ চিকিত্সা পদ্ধতিতে কোনও অসুবিধাই হবে না। কিন্তু যেখানে চিকিত্সা ও গবেষণার জন্য অনুমতিই নেই, সেখানে রোগীদের ওপর ওষুধ প্রয়োগ করা হবে কীভাবে? বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকদের মতে পুরো ব্যাপারটাই বেআইনি।



First Published: Thursday, February 20, 2014 - 22:54


comments powered by Disqus