নগরপাল বদলি: মুখ্যমন্ত্রীর ভিন্ন সুর সুব্রতর গলায়

Last Updated: Friday, February 15, 2013 - 16:58

নগরপাল অপসারণ বিতর্কে ভিন্ন সুর শোনা গেল মুখ্যমন্ত্রী এবং পঞ্চায়েতমন্ত্রীর কথায়। গতকালই মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, গার্ডেনরিচ কাণ্ডে ব্যবস্থা নিতে দেরি হওয়ায়, অ্যাকশন নিতে বাধ্য হয়েছেন তিনি। যদিও পঞ্চায়েতমন্ত্রীর বক্তব্য, পচনন্দার বদলির সঙ্গে অন্য কোনও সম্পর্ক নেই।
রঞ্জিত পচনন্দাকে কেন নগরপালের পদ থেকে সরানো হল, বৃহস্পতিবার সন্ধেতেই তা জানিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, "অ্যাকশন নিতে দেরি হয়েছে বলে, আমাকে এই অ্যাকশনটা নিতে হয়েছে।"
যদিও এই বিষয়ে পুরো অন্য কথা শোনা গিয়েছে পঞ্চায়েতমন্ত্রীর মুখে। তিনি বলেন, নগরপালকে অপসারণ করা হয়নি, কোনও শাস্তিও দেওয়া হয়নি। পচনন্দার অপসারণকে রুটিন বদলি হিসেবেই ব্যাখ্যা করেছেন তিনি।
কেন পঞ্চায়েতমন্ত্রী পচনন্দার অপসারণকে সাধারণ ঘটনা হিসেবেই দেখছেন? ইঙ্গিত মিলেছে রেলপ্রতিমন্ত্রী অধীর চৌধুরীর কথায়। পুলিস কমিশনার বদলি নিয়ে অধীর বাবু বলেন, "রণজিত্‍ কুমার পচনন্দা যা করতে চলেছিলেন তাতে সরকারকে বিড়ম্বনায় পড়তে হত। সেই কারণেই সরানো হল পচনন্দাকে।"
অধীর চৌধুরীর দাবি, রঞ্জিত পচনন্দা যেভাবে কড়া হাতে গার্ডেনরিচ কাণ্ডের তদন্তভার সামলাচ্ছিলেন, তাতে বন্দর এলাকায় মাফিয়ারাজের ছবি বেআব্রু হয়ে যেত। তার জেরে বিড়ম্বনায় পড়ত রাজ্য সরকার।
নগরপাল অপসারণের ঘটনায় সরকারের সিদ্ধান্তকে আগেই প্রকাশ্যে ভুল বলে মন্তব্য করেছেন রাজ্যপাল। শুক্রবার একই ভাবে সরকারের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছে কংগ্রেস শিবির।
পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের নাম না করে, কংগ্রেস নেতৃত্বের অভিযোগ, বন্দর এলাকার দোর্দণ্ডপ্রতাপ তৃণমূলনেতাকে আড়াল করতেই রঞ্জিত্ পচনন্দাকে তড়িঘড়ি নগরপালের পদ থেকে সরিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। গোটা ঘটনায় রাজ্যে আইন-শৃঙ্খলার ভবিষ্যত নিয়ে গভীর আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তাঁরা।



First Published: Friday, February 15, 2013 - 16:58


comments powered by Disqus