ধরনায় বসলেন সিএসটিসি-র অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা

গত তিনমাস ধরে রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহণ সংস্থা সিএসটিসি-র অবসরপ্রাপ্ত ছহাজার কর্মীর পেনশন বন্ধ। এদের মধ্যে রয়েছেন উনত্রিশ-শো মহিলা কর্মী। পেনশন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় চরম আর্থিক সংকটে পড়েছেন সিএসটিসি-র অবসরপ্রাপ্ত ছহাজার কর্মী ও তাদের পরিবার।

Updated: Oct 24, 2011, 05:05 PM IST

গত তিনমাস ধরে রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহণ সংস্থা সিএসটিসি-র অবসরপ্রাপ্ত ছহাজার কর্মীর পেনশন বন্ধ। এদের মধ্যে রয়েছেন উনত্রিশ-শো মহিলা কর্মী। পেনশন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় চরম আর্থিক সংকটে পড়েছেন সিএসটিসি-র অবসরপ্রাপ্ত ছহাজার কর্মী ও তাদের পরিবার। সমস্যার সমাধানের দাবি জানিয়ে আজ ধর্ণা অবস্থানে বসছেন পেনশনভোগী অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীরা। অবসর জীবনের শেষ আর্থিক সম্বল পেনশন। তাও হঠাত্‍ বন্ধ হয়ে গেছে। এর জেরে চরম আর্থিক সমস্যায় পড়েছেন রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহণ সংস্থা সিএসটিসির ছহাজার অবসরপ্রাপ্ত কর্মী। পেনশন বন্ধ জুনের পর থেকেই। তিনমাস ধরে আবেদন জানিয়েও কোনও ফল মেলেনি। ইতিমধ্যেই আর্থিক সঙ্কটে নাজেহাল হয়ে আত্মহত্যাও করেছেন একজন। শেষ পর্যন্ত সোমবার থেকে বেলগঘরিয়ার নীলগঞ্জ রোডে সিএসটিসির সদর দফতরের সামনে ধরনায় বসলেন অবসর প্রাপ্ত কর্মী এবং তাঁদের পরিবারের লোকেরা। রাজ্য অর্থদফতর সিএসটিসির জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের পেনশন বাবদ দুকোটি চল্লিশ লক্ষ চুয়ান্ন হাজার টাকা মঞ্জুর করেছে বলে দাবি অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের সংগঠনের। সিএসটিসি কর্তৃপক্ষ গত উনত্রিশে অগাষ্টের সেই সরকারি নির্দেশ প্রকাশ না করাতেই পেনশন হাতে পান নি বলে অভিযোগ অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের। নিয়মিত পেনশন চালুর পাশাপাশি চারমাসের ডিএ রিলিফ সহ বকেয়া পেনশন অবিলম্বে মেটানোর দাবি তুলেছেন কর্মীরা। সোমবারের ধরনায় অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের আরও দাবি, গ্র্যাচুয়িটি, লিভ স্যালারি বকেয়া রাখা যাবে না।