ট্রেডইউনিয়নের চেহারাবদল তৃণমূলের

Last Updated: Saturday, March 31, 2012 - 19:33

রাজ্যের সবকটি স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শ্রমিক সংগঠন প্রত্যাহার করল তৃণমূল কংগ্রেস। আইএনটিটিইউসি-র শ্রমিক সংগঠনের বদলে তৈরি হল সামাজিক সংগঠন। তবে নামে ট্রেড ইউনিয়ন না হলেও এই সংগঠণগুলির দায়িত্ব দেওয়া হল দোলা সেন-কে। দলে যার পরিচিতি শ্রমিক নেত্রী হিসেবেই।
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দলতন্ত্র রাখবেন না বলে ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তা প্রমাণ করতে শনিবার রাজ্যের সবকটি স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তৃণমূল সমর্থক শিক্ষাকর্মীদের ট্রেড ইউনিয়ন প্রত্যাহার নেওয়া হল। তার বদলে বামপন্থীদের ধাঁচে নতুন করে তৈরি করা হল সংগঠন। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে যার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী মুকুল রায় ও দলের শ্রমিকনেত্রী দোলা সেন । কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইএনটিটিইউসি অনুমোদিত অশিক্ষক কর্মীদের সংগঠনের নাম ক্যালকাটা ইউনিভারসিটি তৃণমূল এপ্লইজ অ্যাসোসিয়েশন। যার নেতা শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। সম্প্রতি দলেরই শ্রমিকনেত্রী দোলা সেনের সঙ্গে যার সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকেছে। তাই তাঁকে কোণঠাসা করতে নতুন সংগঠণে ট্রেড ইউনিয়ন শব্দটাই রাখা হয়নি বলে মনে করা হচ্ছে।
ট্রেড ইউনিয়নের বদলে তৈরি হল সামাজিক সংগঠন। যার রেজিস্ট্রেশন ট্রেড ইউনিয়ন হিসেবে নয়, সোসাইটি রেজিস্ট্রেশন অ্যাক্টের আওতায়। স্কুল ও কলেজের শিক্ষাকর্মীদের নিয়ে একটি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাকর্মীদের নিয়ে আরেকটি সামাজিক সংগঠন তৈরির সিদ্ধান্ত নিল দল। বিতর্ক এড়াতে শিক্ষাকর্মীদের এই সংগঠনে নথিভুক্ত হবে শিক্ষাবন্ধু হিসেবে। মজার ব্যাপার, দুটি সংগঠণের দায়িত্ব যাকে দেওয়া হল, সেই দোলা সেন দলের শ্রমিকনেত্রী হিসেবে পরিচিত। ফলে দলতন্ত্র মুছে ফেলার আশ্বাস কতটা কার্যকরী হবে বা ট্রেড ইউনিয়ন শব্দটা বাদ কী লাভ হল,  তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। পাশাপাশি, বাম আমলে বিরোধী দল তৃণমূলের হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে সংগঠনকে তৈরি ও মজবুত করেছেন যারা, শনিবারের সভায় তারাই ব্রাত্য হয়ে যাওয়ায় তৈরি হয়েছে ক্ষোভ। দলেরই একাংশ মনে করছে এই ঘটনা গোষ্ঠীকোন্দলের আরও একটা উদাহরণ।



First Published: Saturday, March 31, 2012 - 19:33


comments powered by Disqus
Live Streaming of Lalbaugcha Raja