তৃণমূলের ডার্টি পিকচার আর কিছু কথা

Last Updated: Wednesday, January 2, 2013 - 20:07

ভাঙড় থানার সামনে তারস্বরে গান এবং উদ্দাম নাচ। নাচে মুগ্ধ স্থানীয় তৃণমূল নেতা টাকা উড়িয়ে দিলেন নৃত্যরত মহিলাদের লক্ষ্য করে। সারা সন্ধ্যা এমনই বিচিত্রানুষ্ঠান চলল গতকাল, তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবসে। বিনা অনুমতিতে। ২৪ ঘণ্টায় সে ছবি সম্প্রচারের পরে তৃণমূলের শীর্ষনেতাদের হস্তক্ষেপে বন্ধ হল সেই অনুষ্ঠান। তৈরি হল নতুন বিতর্ক।

রাজ্যে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবস। তাই এই বিচিত্রানুষ্ঠান। সরকারি সভা থেকে দলীয় সভা। মণীষীদের রচনাংশের উদ্ধৃতি হামেশাই শোনা যায় মুখ্যমন্ত্রীর গলায়। কিন্তু তাঁর সেই অভ্যেসের সঙ্গে তাঁর দলের প্রতিষ্ঠা দিবসের এই অনুষ্ঠান কি মিলছে...
 
 
গানের সঙ্গেই মঞ্চজুড়ে চার তরুণীর নাচ। দীর্ঘক্ষণ। তরুণীদের লক্ষ্য করে টাকাও উড়ল। টাকা ওড়ালেন উদ্যোক্তা, মানে তৃণমূল নেতারা। অনুষ্ঠানের প্রধান উদ্যোক্তা মীর তাহের আলি। তিনি তৃণমূলের জেলা পরিষদের সদস্য।
   
মঙ্গলবার সারা সন্ধেজুড়ে ভাঙড় থানার নাকের ডগায় তারস্বরে মাইক বাজিয়ে চলা এই অনুষ্ঠান অবশ্য হল প্রশাসনের কোনও অনুমতি না নিয়েই। মঙ্গলবার রাত এগারোটায় চব্বিশ ঘণ্টায় এই ছবি সম্প্রচারের পরেই মন্ত্রী মন্টুরাম পাখিরার কাছে ফোন যায় তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক মুকুল রায়ের। মন্ত্রীর ফোন পেয়ে পুলিশ গিয়ে অনুষ্ঠান বন্ধ করে।
 
অনুষ্ঠান তো বন্ধ হল। কিন্তু প্রশ্ন ওঠা যে বন্ধ হল না। দিল্লি গণধর্ষণ কাণ্ডের প্রতিবাদে দেশজুড়ে বিক্ষোভ। নারীর সম্মান রক্ষার দাবি। প্রতিবাদে সামিল তৃণমূল কংগ্রেসও। ফেসবুকে প্রতিবাদ মুখ্যমন্ত্রীর। প্রতিবাদ তাঁর কবিতায়। আর তাঁর দলেরই প্রতিষ্ঠা দিবসের অনুষ্ঠানে নৃত্যরত মহিলাদের লক্ষ্য করে টাকা ছুঁড়ে দিচ্ছেন তাঁর দলেরই নেতারা। 
 



First Published: Thursday, January 3, 2013 - 10:25


comments powered by Disqus