ঘেরাও উঠলেও কাটল না জট

Last Updated: Tuesday, December 18, 2012 - 14:50

সন্তোষপুরের স্কুলে ঘেরাও তুলতে সমস্ত উত্তরপত্র স্ক্রুটিনির সিদ্ধান্ত নিল শিক্ষা সংসদ। সংসদের এই সিদ্ধান্তে অসন্তুষ্ট স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা। তাঁর মতে, সংসদের এই সিদ্ধান্তে বিপজ্জনক প্রবণতা তৈরি হবে।
এদিকে ২৪ ঘণ্টার খবরের জেরে আজ দুপুরে সন্তোষপুরে স্কুলে ঘেরাও ওঠে। ঘেরাও চলে টানা ২০ ঘণ্টা। উচ্চমাধ্যমিক টেস্ট পরীক্ষায় অকৃতকার্য ২৯ জন ছাত্রী তাঁদের পাস করানোর দাবিতে গতকাল দুপুর থেকে সন্তোষপুরের ঋষি অরবিন্দ বালিকা বিদ্যাপীঠ স্কুলের প্রধানশিক্ষিকাকে ঘেরাও করে রাখে। ক্ষুব্ধ ছাত্রীরা অভিভাবকদের সঙ্গে নিয়ে ঘেরাও করে রেখেছিলেন স্কুলের অন্য কয়েকজন শিক্ষিকাকেও।
২৪ ঘণ্টায় এই ঘেরাওয়ের খবর সম্প্রচারিত হয়। রাতভর ঘেরাওয়ের পর আজ  দুপুর পর্যন্ত ঘেরাও চলে। বিক্ষোভের জেরে প্রাতঃবিভাগের ছাত্রীরা স্কুলে ঢুকতে পারেনি। বাতিল করে দিতে হয় একাদশ শ্রেণির প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষাও। ঘেরাও চলাকালীন স্কুলের প্রধান শিক্ষিকার সঙ্গে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। এরপর শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশে স্কুলে যান উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সচিব অচিন্ত্য কুমার পাল ও পরীক্ষা নিয়ামক মলয় রায়। উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের প্রতিনিধিরা স্কুলের শিক্ষিকা, ছাত্রী এবং তাঁদের অভিভাবকদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন। শিক্ষা সংসদের তরফে আশ্বাস দেওয়া হয় নতুন করে ছাত্রীদের টেস্টের খাতা দেখা হবে। অকৃতকার্য ছাত্রীদের পাশাপাশি যে ছাত্রীরা টেস্টে পাস করেছেন, তাঁদের খাতাও নতুন করে দেখার জন্য নিয়ে যান শিক্ষা সংসদের প্রতিনিধিরা।



First Published: Tuesday, December 18, 2012 - 15:08


comments powered by Disqus