পুলিসের বিরুদ্ধে এফআইআর, পাল্টা হুমকি পুলিসেরও

Last Updated: Wednesday, April 3, 2013 - 10:29

পুলিসের মারে ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় সরগরম রাজ্য। যদিও পুলিসের দাবি, লাইটপোস্টে ধাক্কা লেগে চলন্ত বাস থেকে পড়ে গিয়েছিলেন সুদীপ্ত গুপ্ত। কিন্তু পুলিসের বয়ানের সঙ্গে প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ানে বিস্তর ফারাক ধরা পড়েছে। গতকালের ঘটনায় এসএফআইয়ের এক সমর্থক হেস্টিংস থানায় পুলিসের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন।
মঙ্গলবার রাসমণি রোড থেকে গ্রেফতারের পর এসএফআই সমর্থকদের বাসে করে প্রেসিডেন্সি জেলে নিয়ে যাচ্ছিল পুলিস। তেমনই একটি বাসে ছিলেন সুদীপ্ত গুপ্ত। পুলিসের দাবি, জেলের কাছে পৌঁছতেই বাসের ভিতর বচসা শুরু হয়।
কিন্তু ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী যা শোনালেন, তার সঙ্গে পুলিসের বক্তব্যের বিন্দুমাত্র মিল নেই। তাঁদের বক্তব্য আইন অমান্য কর্মসূচীর পর গ্রেফতার হলে বাস থেকে নামানোর সময় সুদীপ্ত সহ বেশ কয়েকজনকে পুলিস বেধরক মারে বলে। তাঁদের আরও অভিযোগ, বাস থেকে নামতে গিয়ে পুলিসের ধাক্কায় পড়ে যান সুদীপ্ত। তার পরেও তাঁর উপর মার পড়তে থাকে বলেও জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।
হেস্টিংস থানায় পুলিসের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন সুদীপ্তর বন্ধু এবং প্রত্যক্ষদর্শী ডোনা। সুদীপ্তর মৃত্যুর জন্য তিনি যেভাবে পুলিসকে দায়ী করেছেন, সেই একই অভিযোগ উঠে এসেছে অন্যান্য প্রত্যক্ষদর্শীদের কথায়। 
সুদীপ্তর দেহের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন মিলেছে বলে জানিয়েছেন এসএসকেএম হাসপাতালের চিকিত্সক। 
অভিযোগের তর্জনী যতই তাদের দিকে হোক না কেন, পাল্টা মামলা করার কথা জানিয়েছে পুলিসও। 
বিরোধী দলের ছাত্রনেতার মৃত্যুর দিন, আইপিএলের অনুষ্ঠানে ব্যস্ত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ঘটনায় কী বলছেন শাসকদলের প্রতিনিধিরা? শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর প্রতিক্রিয়া, মৃত্যুর ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক। নিহতের পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি। সুদীপ্তর মৃত্যুকে দুর্ভাগ্যজনক বলে উল্লেখ করেছেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি। সতর্কতা নেওয়া হলে এমন ঘটনা ঘটত না বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।



First Published: Wednesday, April 3, 2013 - 12:31


comments powered by Disqus