ভয়াবহ আগুনে পুড়ল কাপড়ের গুদাম

জগন্নাথ ঘাট লাগোয়া পোস্তা বাজারের আগুন আপাতত কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে। আগুন ছড়িয়ে পড়ার আর কোনও আশঙ্কা না থাকলেও  গুদামের ভিতরের আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি বলেই জানিয়েছেন দমকল আধিকারিকরা। দমকলসূত্রে খবর আগুন নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়াচ্ছে গুদামে মজুত দাহ্য বস্তু ও রাসায়নিক পদার্থ।

Updated: Jan 3, 2013, 09:48 AM IST

জগন্নাথ ঘাট লাগোয়া পোস্তা বাজারের আগুন আপাতত কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে। আগুন ছড়িয়ে পড়ার আর কোনও আশঙ্কা না থাকলেও  গুদামের ভিতরের আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি বলেই জানিয়েছেন দমকল আধিকারিকরা। দমকলসূত্রে খবর আগুন নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়াচ্ছে গুদামে মজুত দাহ্য বস্তু ও রাসায়নিক পদার্থ।
গঙ্গা থেকে পাম্পের মাধ্যমে জল তুলে জোরকদমে চলছে জগন্নাথ ঘাট লাগোয়া পোস্তা বাজারে আগুন নিয়ন্ত্রণের কাজ। তবে গঙ্গার জলস্তর কমে গেলে কাজে সমস্যা হবে বলে ইতিমধ্যেই জানানো হয়েছে দমকলের তরফে। সেক্ষেত্রে মল্লিকঘাট পাম্পিং স্টেশন থেকে জল তুলে আগুন নেভানোর কাজ করা হবে বলেও জানা গেছে।
দমকলের ২৫টি ইঞ্জিনের ঘণ্টা তিনেকের চেষ্টায় কিছুটা নিয়ন্ত্রণে জগন্নাথ ঘাট লাগোয়া পোস্তা বাজারের আগুন। আজ সকাল সোয়া ৮টা নাগাদ বাজারের একটি কাপড়ের গুদামে আগুন লাগে। গুদামে প্রচুর পরিমানে কাপড় ও দাহ্য পদার্থ মজুত থাকায় অল্পক্ষণের মধ্যেই ভয়াবহ আকার নেয় আগুন। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় দমকলের ২৫টি ইঞ্জিন। এলাকাটি অত্যন্ত ঘিঞ্জি হওয়ায় দমকলের গাড়ি ঢুকতে বেশ অসুবিধা হয়।
প্রথমে আগুন লাগে গুদামের এক তলায়, পরে তা দুতলা ও তিনতলায় ছড়িয়ে পড়ে। প্রচুর পরিমানে দাহ্য পদার্থ মজুত থাকায় ক্রমশই ভয়াবহ চেহারা নিতে থাকে আগুন। কাপড়ের গুদামটি আকারে বিশাল হওয়ায় আগুন নেভাতে বেশ বেগ পেতে হয় দমকল কর্মীদের। তবে, প্রায় তিন ঘণ্টার চেষ্টায় শেষ পর্যন্ত আগুন অনেকটাই  নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। তবে, কিছু কিছু অংশে এখনও আগুন জ্বলছে। গুদামটি বহু পুরোন হওয়ায় বাড়িটির বিভিন্ন অংশ থেকে চাঙড় ভেঙে পড়ছে। অনেক জায়গায় ফাটলও দেখা দিয়েছে। অত্যন্ত ঘিঞ্জি এলাকায় আগুন লাগায় এলাকায় জুড়ে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। দমকলের কাজের  সুবিধার জন্য বন্ধ রাখা হয় চক্ররেল পরিষেবা।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close