অগ্নিদগ্ধ বহুতলে সরোজমিনে বিশেষজ্ঞ দল

ধর্মতলার বহুতলে অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা ছিল কী না, তা খতিয়ে দেখল শুক্রবার  বিশেষজ্ঞ দল। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে রাজ্য সরকার। বৃহস্পতিবার রাতে ৫০ নম্বর চৌরঙ্গী রোডের বহুতলে আগুন লাগার পর, ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে একথা বলেন দমকলমন্ত্রী জাভেদ খান।

Updated: Mar 30, 2012, 09:06 AM IST

ধর্মতলার বহুতলে অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা ছিল কী না, তা খতিয়ে দেখল সেখানে যাবে বিশেষজ্ঞ দল। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে রাজ্য সরকার। বৃহস্পতিবার রাতে ৫০ নম্বর চৌরঙ্গী রোডের বহুতলে আগুন লাগার পর, ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে একথা বলেন দমকলমন্ত্রী জাভেদ খান।
বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ ধর্মতলার একটি বহুতলে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ৫০ নম্বর চৌরঙ্গী রোডের ওই বহুতলে ছুটে যায় দমকলের ১১টি ইঞ্জিন। প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও, কী ভাবে আগুন লাগলো, তা এখনও স্পষ্ট নয়। দমকল কর্মীদের অভিযোগ, বহুতলে আগুন নেভানোর পর্যাপ্ত ব্যবস্থা ছিল না।
 
বহুতলের যে তলায় আগুন লেগেছিল, সেখানে একটি বেসরকারি পরিবহণ সংস্থার অফিস ছাড়াও একাধিক বেসরকারি দফতর রয়েছে। আগুন লাগার সময় অধিকাংশ দফতর বন্ধ ছিল। ফলে দমকল কর্মীরা বাইরে থেকে কাঁচ ভেঙে আগুন নেভান। আগুন অন্যান্য দফতরে যাতে ছড়িয়ে না পড়ে, সেদিকেও লক্ষ্য ছিল দমকল কর্মীদের। খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে ছুটে যান রাজ্যের দমকলমন্ত্রী জাভেদ খান। তিনিও জানান, কী ভাবে আগুন লাগল, তা তদন্ত করে দেখা হবে।   পরে ঘটনাস্থলে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে গিয়ে তিনি বলেন, দ্রুত যাঁরা আগুন নিভিয়েছেন সেই দমকলকর্মী, পুলিসকর্মী ও ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট গ্রুপের কর্মীদের এক হাজার টাকা করে পুরস্কার দেওয়া হবে।