জ্যোতি বসুর জন্মশতবর্ষেই রাজারহাট উপনগরী থেকে তাঁর নাম মুছতে উদ্যোগী রাজ্য

জ্যোতি বসুর জন্ম শতবর্ষেই রাজারহাট উপনগরী থেকে তাঁর নাম মুছে দিতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার। রাজারহাটের নাম জ্যোতি বসু নগর রেখে বিল পাস হয়েছিল বাম আমলে। বিধানসভার আগামী অধিবেশনে সেই বিল প্রত্যাহার করতে চলেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার।

Updated: Nov 9, 2013, 10:21 AM IST

জ্যোতি বসুর জন্ম শতবর্ষেই রাজারহাট উপনগরী থেকে তাঁর নাম মুছে দিতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার। রাজারহাটের নাম জ্যোতি বসু নগর রেখে বিল পাস হয়েছিল বাম আমলে। বিধানসভার আগামী অধিবেশনে সেই বিল প্রত্যাহার করতে চলেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। 
বাম আমলে রাজারহাট উপনগরীর নাম বদলে জ্যোতি বসু নগর নাম রাখা হয়। ২০১১ সালের মার্চ মাসে বিধানসভায় পাস হয় সেই বিল। কিন্তু, এই নাম পরিবর্তন না পসন্দ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের। সেই কারণেই পাল্টা বিল আসছে আগামী বিধানসভা অধিবেশনে। আগামী ১৮ ডিসেম্বর শুরু হবে রাজ্য বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশন। সেই অধিবেশনেই নাম প্রত্যাহারের বিলটি পেশ করা হবে।
নিশ্চিতভাবেই বলা যায়, এই বিল পেশ হলে সরকার ও বিরোধীদের মধ্যে তুমুল বাগবিতণ্ডা হবে। বিরোধী বাম শিবিরের অভিযোগ, সরকারের এই পদক্ষেপ অসৌজন্যের রাজনীতির সর্বোচ্চ উদাহরণ। বিরোধীদের এও বক্তব্য, জ্যোতি বসু শুধু কোনও একটি দলের সদস্য নন, ভারতীয় রাজনীতির তিনি একজন প্রবাদপ্রতীম ব্যক্তিত্ব। তাই সরকারের এই পদক্ষেপ চরম অবমাননাকর। শীতকালীন অধিবেশনেই বিধানসভার ৭৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানের শেষ পর্ব। যে অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসবেন স্বয়ং রাষ্ট্রপতি। তার আগে নাম পরিবর্তন নিয়ে চরম অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।