চাইলেই মিলছে ছুটি, কিন্তু বকেয়া ডিএ-র প্রশ্নেই মুখ ফেরাচ্ছে সরকার

Last Updated: Monday, March 3, 2014 - 21:02

ক্যালেন্ডার ভর্তি সরকারি ছুটি। রবিবার দোলযাত্রা পড়ে যাওয়ায় সোমবারও ছুটি দিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। ছুটি চাইলে কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু, বকেয়া ডিএ চাইলেই মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে সরকার। ডিএ না দিয়ে সরকারি কর্মচারীদের কতটা খুশি করা যাবে, তা নিয়ে রীতিমতো চিন্তিত তৃণমূলপন্থী সরকারী কর্মী সংগঠনের নেতারা।

কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের এখন একশো শতাংশ ডিএ। এরমধ্যে পঞ্চাশ শতাংশ বেতনের সঙ্গে যুক্ত করা যায় কিনা, তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু, রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের ডিএ আটকে সেই বাহান্ন শতাংশেই। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিয়েছেন, এখনই ডিএ দেওয়া সম্ভব নয়।মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণায় যারপরনাই ক্ষুব্ধ সরকারি কর্মচারীরা। আর আতঙ্কিত তৃণমূলপন্থী কর্মী সংগঠনের নেতারা। কারণ, তারা জানেন ক্যালেন্ডার ভর্তি ছুটি পেলেও ডিএ না পেলে সবটাই জলে। সোমবার পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে বসেন সংগঠনের নেতারা। অনেক বিষয়ের মধ্যেই আলোচনা হয়েছে বকেয়া ডিএ নিয়েও। যদিও, প্রকাশ্যে সংগঠনের নেতাদের দাবি, ডিএ নিয়ে আদৌ চিন্তিত নন সরকারি কর্মচারীরা।

আরও একটা তাতপর্যপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে তৃণমূলপন্থী সরকারি কর্মী সংগঠন। ভোট কীভাবে নিরপেক্ষ করা যায়, তা সরকারি কর্মচারীদের বোঝাতে সারারাজ্যে ঘুরবেন তারা। হঠাত কেন এই উদ্যোগ? ইতিমধ্যেই উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন। তবে, সবকিছু ছাপিয়ে সামনে চলে এসেছে ডিএ সমস্যা।



First Published: Monday, March 3, 2014 - 21:02


comments powered by Disqus