আবার আদালতে ধাক্কা খেল রাজ্য

Last Updated: Friday, December 21, 2012 - 17:17

হাইকোর্টে ফের ধাক্কা খেল রাজ্য সরকার। প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত সরকারি বিজ্ঞপ্তি আজ খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট। দৃষ্টিহীনদের জন্য সংক্ষণের  উল্লেখ না থাকায় ওই বিজ্ঞপ্তিকে বেআইনি এবং অসাংবিধানিক বলেছে আদালত।
প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের  বিজ্ঞপ্তিতে দৃষ্টিহীনদের জন্য কোনও সংরক্ষণের কথা উল্লেখ করা হয়নি।  বিজ্ঞপ্তির বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টে  রিট পিটিশন দাখিল করে দৃষ্টিহীনদের সংগঠন। আবেদনে বলা হয়, ডিসেবেলিটি আইন অনুযায়ী দৃষ্টিহীনদের জন্য সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা উচিত ছিল। শুক্রবার  বিচারপতি দেবাশিস করগুপ্ত জানিয়ে দেন, প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তিটি অসাংবিধানিক। প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে অবিলম্বে দৃষ্টিহীন প্রার্থীদের জন্য এক শতাংশ সংরক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে বলে রাজ্যকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।
পরীক্ষা হলে দৃষ্টিহীন  পরীক্ষার্থিদের  প্রতি ঘণ্টায় পনেরো মিনিট বাড়তি সময় দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। দৃষ্টিহীন পরীক্ষার্থিরা লেখার সাহায্যের জন্য হলের মধ্যে একজন সঙ্গী রাখতে পারবে।
এর আগে প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে এনসিটিই-র নিয়ম মেনে সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না, এই অভিযোগ তুলে হাইকোর্টে মামলা করেন প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা। হাইকোর্ট  নিয়োগ প্রক্রিয়ায়  স্থগিতাদেশ জারি করে। গত সোমবার হাইকোর্টের স্থগিতাদেশকে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চে পাল্টা মামলা দায়ের করে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। গত বুধবার আদালত নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্থগিতাদেশ খারিজ করে দেয়। কিন্তু প্রাথমিকে নিয়োগের ক্ষেত্রে এনসিটিইর নিয়ম মেনে নিয়োগের বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়নি, তা আদালতের নির্দেশ থেকে স্পষ্ট হয়ে যায়। এরপর শুক্রবার দৃষ্টিহীনদের সংরক্ষণ নিয়ে আদালতের নির্দেশে ফের অস্বস্তি বাড়ল সরকারের। নিয়োগ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিকে অসাংবিধানিক বলায় ফের অনিশ্চিয়তার মধ্যে পড়ে গেল পরীক্ষার্থীদের ভবিষ্যত। 



First Published: Friday, December 21, 2012 - 17:17


comments powered by Disqus
Live Streaming of Lalbaugcha Raja