বেলেঘাটাতে দুষ্কৃতী তান্ডব, ছাড়া পেলেন না গর্ভবতী মহিলাও

শহরে জমি দখলে বাধা দেওয়ায় এক পরিবারের ওপর তাণ্ডব চালাল দুষ্কৃতীরা। ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার নারকেলডাঙা মেইন রোডে। কালীপুজোর রাতে স্থানীয় বাসিন্দা প্রদীপ দাসের বাড়িতে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। দুষ্কৃতীদের হাত থেকে রেহাই পাননি বাড়ির অন্তঃসত্ত্বা মহিলাও। তাকে মারধরের পাশাপাশি, জোর করে জমির অংশ লিখিয়ে নেওয়ার চেষ্টা হয় বলে অভিযোগ। অভিযোগ এই দুষ্কৃতীরা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা পরেশ পালের ঘনিষ্ঠ। পুলিস ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Updated: Nov 16, 2012, 05:48 PM IST

শহরে জমি দখলে বাধা দেওয়ায় এক পরিবারের ওপর তাণ্ডব চালাল দুষ্কৃতীরা। ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার নারকেলডাঙা মেইন রোডে। কালীপুজোর রাতে স্থানীয় বাসিন্দা প্রদীপ দাসের বাড়িতে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। দুষ্কৃতীদের হাত থেকে রেহাই পাননি বাড়ির অন্তঃসত্ত্বা মহিলাও। তাকে মারধরের পাশাপাশি, জোর করে জমির অংশ লিখিয়ে নেওয়ার চেষ্টা হয় বলে অভিযোগ। অভিযোগ এই দুষ্কৃতীরা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা পরেশ পালের ঘনিষ্ঠ। পুলিস ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।
দীর্ঘদিন ধরেই একটি জমিকে কেন্দ্র করে বিবাদ আঠেরো বাই এক নারকেল ডাঙা মেইন রোডের বাসিন্দা প্রদীপ দাস এবং তাঁর প্রতিবেশি সোমনাথ দত্তের। আক্রান্ত প্রদীপ দাসের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে জমি জোর করে লিখিয়ে নিতে কালীপুজোর রাতে প্রদীপ দাসের বাড়িতে হানা দেয় ১০-১২জনের সশস্ত্র দুষ্কৃতী দল। বাসিন্দাদের মাথায় আগ্নেয়াস্ত্র ঠেকিয়ে বিতর্কিত জমি লিখে দিতে বলে দুষ্কৃতীরা। রাজি না হওয়ায়, আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়। পরিবারের সদস্য অন্তঃসত্ত্বা তপতী দাসের পেটে লাথি মারে তারা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে ভর্তি করা হয়েছে এনআরএস হাসপাতালে। দাস পরিবারের অভিযোগ, সোমনাথ দত্তই দুষ্কৃতীদের ভাড়া করে। দুষ্কৃতীরা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা পরেশ পালের ঘনিষ্ঠ বলেও অভিযোগ। ঘটনার পরের দিন এই বাড়িতে স্থানীয় বিধায়ক পরেশ পাল গিয়েছিলেন। তবে এ বিষয়ে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি কোনও কথা বলতে অস্বীকার করেন।
ঘটনার পরদিন বেলেঘাটা থানায় ৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। কিন্তু তিনদিন পরেও অধরা অভিযুক্তরা। সকলের বিরুদ্ধেই জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা শুরু করেছে পুলিস।