পাইলিনের প্রভাবে মাছের বাজার `লক্ষ্মীছাড়া`, শাকসবজির বাজারে আগুন

ঘূর্ণিঝড় পাইলিনের প্রভাবে ওড়িশা থেকে আসা সামুদ্রিক মাছের জোগান কমে গেছে। চাঁদার জুলুমে অন্ধ্র থেকে আসা মাছভর্তি ট্রাকও সংখ্যায় কম ঢুকছে রাজ্যে। এই দুইয়ের জাঁতাকলে বাজারে মাছের দাম আগুন। অতিবৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হওয়ায়  নষ্ট হয়েছে বহু ফসল। ফলে সবজির দরও আকাশছোঁয়া।  ঘূর্ণিঝড় পাইলিনের প্রভাবে অতিবৃষ্টিতে পূর্ণ হয়ে গেছে বেশিরভাগ জলাধার। 

Updated: Oct 17, 2013, 03:50 PM IST

ঘূর্ণিঝড় পাইলিনের প্রভাবে ওড়িশা থেকে আসা সামুদ্রিক মাছের জোগান কমে গেছে। চাঁদার জুলুমে অন্ধ্র থেকে আসা মাছভর্তি ট্রাকও সংখ্যায় কম ঢুকছে রাজ্যে। এই দুইয়ের জাঁতাকলে বাজারে মাছের দাম আগুন। অতিবৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হওয়ায়  নষ্ট হয়েছে বহু ফসল। ফলে সবজির দরও আকাশছোঁয়া।  ঘূর্ণিঝড় পাইলিনের প্রভাবে অতিবৃষ্টিতে পূর্ণ হয়ে গেছে বেশিরভাগ জলাধার। 
ডিভিসি জল ছাড়ায়  প্লাবিত  হয়েছে দুই মেদিনীপুর, হুগলি, হাওড়াসহ দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকা। অতিবৃষ্টি ও বন্যার ফলে মাঠেই নষ্ট হয়েছে বহু ফসল। তাই পুজোর পরপরই  সবজির বাজারদর আকাশছোঁয়া। পটল, ঝিঙে, লঙ্কা, বরবটি, পেঁপে, লাউ, বাঁধাকপি, বেগুন সবকিছুরই দাম বেড়ে হয়েছে কমপক্ষে দ্বিগুন।
 
একই অবস্থা মাছের বাজারেরও। কাটাপোনা, ইলিশ, পপফ্রেট, চিংড়ি সবকিছুর দম বেড়েছে অস্বাভাবিকহারে। পাইলিনের প্রভাবে ওড়িশা থেকে আসা সামুদ্রিক মাছের জোগান কমেছে। উপরন্তু চাঁদার জুলুমে অন্ধ্র থেকে আসা মাছের ট্রাকও সংখ্যাও কমে ঢুকছে রাজ্যে। নিট ফল চাহিদার সঙ্গে যোগানের অসঙ্গতিতে মাছের দাম বেড়েছে  মাত্রাতিরিক্ত হারে। লক্ষ্মীপুজোর আগে সবজি এবং মাছের চড়া দাম অস্বস্তিতে রেখেছে ভোজনরসিক বাঙালিকে।