পুলিসের চোখরাঙানি তবু বামেদের সভায় আবেগের সাড়া

Last Updated: Tuesday, October 9, 2012 - 09:51

কলকাতা পুরসভার সামনে বামফ্রন্টের সভার মঞ্চ করতে বাধা দিয়েছিল পুলিস।
কিন্তু পুলিসি বাধার মুখে পড়েও বাম নেতারা মঞ্চ ছাড়াই, খালি গলায় সভা
করলেন। আগেই বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু জানিয়ে দিয়েছিলেন পুলিস বাধা
দিলেও কলকাতা পুরসভার সামনে বামেদের সভা হবে। সেই অবস্থানেই অনড় ছিলেন বাম
নেতারা।
ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভার বিরুদ্ধে কণ্ঠরোধের অভিযোগ তুলল বিরোধীরা। গৌতম দেবের সভার পর এবার পুলিসের টার্গেট রাজ্যের বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্রর সভা। আর সেই সভা নিয়ে বিরোধী ও সরকার পক্ষের টানাপোড়েন তুঙ্গে। পুলিস কলকাতা পুরসভার সামনে বামেদের সভার অনুমতি দেয়নি। বাম নেতারা পাল্টা জানিয়েছেন, আগামিকালের সভা হবেই। কারণ ওই সভার কথা একমাস আগে পুলিসকে জানিয়েছিলেন তাঁরা।
মঙ্গলবার কলকাতা পুরসভার সামনে সভা করবে বামেরা। আটই সেপ্টেম্বর সে কথা কলকাতা পুলিসকে জানায় বামফ্রন্ট। একমাস পরে সাতই অক্টোবর নিউ মার্কেট থানার চিঠি আসে বাম নেতাদের কাছে। সেই চিঠিতে বলা হয়, কলকাতার পুরসভার সামনে সভা করার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না বামেদের। এই সভা হলে আইনশৃঙ্খলার অবনতি হবে বলে জানায় পুলিস। পাল্টা তোপ দাগে বাম নেতারাও। তাঁরা জানান, কলকাতা পুরসভার সামনেই তাঁরা সভা করবেন। অশান্তি হলে দায়ি থাকবে প্রশাসন।
তবে পুলিস কোনও সভার অনুমতি না দিলে মঞ্চ তৈরি এবং মাইক বাধা যথেষ্ট কঠিন। বাম নেতাদের বক্তব্য পুলিসি বাধার মোকাবিলা করেই সভা করবেন তাঁরা। বাম নেতাদের অভিযোগ, ডেঙ্গি মোকাবিলায় ব্যর্থ কলকাতা পুরসভা। ত্রিফলা আলো নিয়েও দুর্নীতি ও স্বজনপোষণের তীব্র অভিযোগ উঠেছ। শহরের সৌন্দর্যায়নে কয়েক কোটি টাকা খরচ করা হলেও বহু জায়গাতেই পানীয় জলের সঙ্কট চলছে। বিরোধী শিবিরের দাবি, তাঁরা এসব ইস্যুতে সরব হচ্ছেন বলেই সভার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। শুধু বিরোধী রাজনৈতিক দলই নয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভার বিরুদ্ধে একাধিক সংগঠন, বুদ্ধিজীবীদের একাংশ বারবার প্রতিবাদের কন্ঠরোধ করার অভিযোগ তুলছে। সেই তালিকায় নতুন সংযোজন মঙ্গলবার সূর্যকান্ত মিশ্রের সভা।



First Published: Wednesday, October 10, 2012 - 11:16


comments powered by Disqus