শ্লীলতাহানির দায়ে গ্রেফতার মদন মিত্রর শ্যালক

Last Updated: Sunday, March 24, 2013 - 20:44

শ্লীলতাহানি ও পুলিসকে মারধরের অভিযোগে গ্রেফতার করা হল পরিবহণ মন্ত্রী মদন মিত্রের শ্যালকের ছেলে সৌম্য ব্যানার্জিকে। অভিযোগ, মদ্যপ অবস্থায় গতকাল রাতে যদুবাবুর বাজারের কাছে এক মহিলার শ্লীলতাহানি করে সৌম্য ও তার সঙ্গীরা। স্থানীয় এক ক্লাব ঘরে ভাঙচুরও চালায় তারা। মূল অভিযুক্ত সৌম্য ব্যানার্জিকে তিরিশ তারিখ পর্যন্ত পুলিসি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। পিসেমশাই পরিবহন মন্ত্রী মদন মিত্র। তাই ভবানীপুরের কাঁসারিপাড়া এলাকায় আলাদা দাপট  সৌম্য ব্যানার্জির। অন্তত তেমনটাই অভিযোগ এলাকাবাসীর। 
গণ্ডগোল চরমে পৌঁছয় শনিবার রাতে। রাত একটা নাগাদ স্থানীয় সাউথ ক্যালকাটা ইউথ ক্লাবের ছেলেদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়ে সৌম্য ও তার ছয় সঙ্গী। অভিযোগ, ক্লাবের ভিতর ঢুকে কয়েকজনকে ব্যাপক মারধর করে সৌম্যরা। ছেলের মার খাওয়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন একজনের মা। মদ্যপ অবস্থায় সৌম্য ও তার সঙ্গীরা ওই মহিলার শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ।  তাঁর সোনার হার ছিনিয়ে নেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে। ভোরের দিকে পুলিস পৌঁছলে পুলিস কর্মীদেরও মারধর করে সৌম্য বাহিনী। ভেঙে দেওয়া হয় পুলিসের গাড়ির কাচও।
সকালে সৌম্য ব্যানার্জি ও তাঁর ছয় সঙ্গীকে গ্রেফতার করে কালীঘাট থানার পুলিস। ধৃতরা হল আশিস যাদব, টিঙ্কু যাদব, সাগর পাঁজা, সুজয় বর্মন, সাগর দাস, বাবাই বোস।অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন পরিবহণমন্ত্রী মদন মিত্র।
ধৃতদের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানি, মারধর, চুরি, সরকারি সম্পত্তির ক্ষতি সহ মোট আটটি ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।মূল অভিযুক্ত সৌম্যেকে তিরিশ তারিখ পর্যন্ত পুলিসি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বাকিদের ছাব্বিশ তারিখ পর্যন্ত পুলিসি হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  
 
 
 



First Published: Sunday, March 24, 2013 - 20:44


comments powered by Disqus