বিদেশি সংস্থার সাহায্যে মাঝেরহাট ব্রিজ পুনর্নির্মাণের ভাবনা সরকারের

সেতু ভেঙে পড়ার সঙ্গে মেট্রোর খননকার্যের কোনও যোগ নেই। সাফ জানিয়েছেন তদন্তকারী অফিসাররা।

Updated: Sep 12, 2018, 03:14 PM IST
বিদেশি সংস্থার সাহায্যে মাঝেরহাট ব্রিজ পুনর্নির্মাণের ভাবনা সরকারের

নিজস্ব প্রতিবেদন : পুনরায় নির্মাণ করা হবে মাঝেরহাট ব্রিজ। তবে ব্রিজ নির্মাণে খড়্গপুর আইআইটি-র ইঞ্জিনিয়ারদের উপর ভরসা রাখতে পারছে না পূর্ত দফতর। মাঝেরহাট ব্রিজ পুনর্নির্মাণের ক্ষেত্রে বিদেশি সংস্থার সাহায্য নেওয়ার ভাবনাচিন্তা করছে রাজ্য সরকার। নবান্ন সূত্রে এমনটাই জানা গেছে।

আরও পড়ুন, ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল কলকাতা-সহ একাধিক জেলা

গত মঙ্গলবার ভেঙে পড়ে মাঝেরহাট সেতু। মৃত্যু হয় ৩ জনের। ঘটনায় পূর্ববর্তী সরকারকে কাঠগড়ায় তোলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, আমাদের দোষ দিয়ে লাভ নেই সব আগের আমলে হয়েছে। এর পরই শুরু হয় তীব্র বিতর্ক। পাশাপাশি মঙ্গলবার নবান্নে বৈঠকে মাঝেরহাট ব্রিজ বিপর্যয় নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন পূর্তমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসও। তিনি বলেন,  "দফতরের মধ্যেই কিছু মিরজাফর রয়েছে। দফতরে বসে এঁরা দফতরেরই ক্ষতি করছেন।" তাঁদের চিহ্নিত করতে সিআইডি তদন্তেরও হুঁশিয়ারি দেন মন্ত্রী। এরপরই সামনে এল মাঝেরহাট ব্রিজ পুনর্নির্মাণে রাজ্য সরকারের বিদেশি সংস্থার সাহায্য নেওয়ার ভাবনার কথা।

আরও পড়ুন, রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ডিএ নিয়ে সুখবর কি পুজোর আগেই?

প্রসঙ্গত, গতকাল কলকাতা পুলিসের ফরেন্সিক বিভাগ স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, রক্ষণাবেক্ষণের অভাবেই ভেঙে পড়েছে মাঝেরহাট সেতু। ফাটল সময়মতো মেরামত না হওয়ায়, সেই অংশ দিয়ে ক্রমাগত চুঁইয়ে জল ঢুকেছে ভিতরে। সেই জলেই মরচে পড়ে দুর্বল হয়ে গিয়েছে গার্ডারের ভিতরে থাকা লোহার রডগুলি। আর তার ফলেই ভেঙে পড়ে সেতুর একাংশ। মাঝেরহাট সেতু বিপর্যয়ের সঙ্গে মেট্রোর খননকার্যের যোগ রয়েছে কিনা, উসকে ওঠে সেই সম্ভাবনার কথাও। কিন্তু মঙ্গলবার সেই সম্ভবনার কথা খারিজ করে দেন তদন্তকারী অফিসাররা। তাঁরা স্পষ্ট জানান, সেতু ভেঙে পড়ার সঙ্গে মেট্রোর খননকার্যের কোনও যোগ নেই। দেড় বছর ধরে মেট্রো ওই এলাকায় কোনও খনন চালায়নি।

আরও পড়ুন, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সরকারি অনলাইন ক্যাব পরিষেবা চালুর দাবি মদনের

অন্যদিকে, মাঝেরহাট সেতু বিপর্যয় মোকাবিলায় তৈরি করা হচ্ছে ২টি নতুন বিকল্প রাস্তা। সেতুর সমান্তরালে একটি রাস্তা তৈরি করা হচ্ছে। অন্যদিকে দ্বিতীয় নতুন রাস্তাটিতে কার্যত আলিপুর অ্যাভিনিউয়ের দৈর্ঘ্য বাড়ছে। আলিপুর অ্যাভিনিউ ও নিউ আলিপুরের মাঝে রেললাইন ও পাঁচিল আছে। লেভেল ক্রসিং তৈরি করার পর পাঁচিল ভেঙে খুলে দেওয়া হবে নতুন রাস্তা।

 

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close