ফেসবুকেই যা বলার বলব, মমতা বন্দ্যোপাধায়

Last Updated: Saturday, June 16, 2012 - 20:59

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে নিজের অবস্থানে তিনি যে অনড়, আরও একবার তা স্পষ্ট করলনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কালামের হয়ে এবার ফেসবুকে প্রচার শুরু করলেন তিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুরোধ, সাধারণ মানুষই তাঁদের নির্বাচিত বিধায়ক এবং সাংসদদের বলুন, তাঁরা যেন কালামের পক্ষে ভোট দেন। শুধু তাই নয়, রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে তিনি এখন থেকে যা বলবেন তা ফেসবুকেই বলবেন বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।  
গতকাল রাতেই মহাকরণে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "দ্য গেম ইজ নট ওভার ইয়েট। যা বলার কাল বলব।" তাঁর এই কথা সূত্রেই বাংলা তথা গোটা ভারত জানতে অপেক্ষায় ছিল কোন নতুন খেলার কথা বলতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী। সাতসকালেই তার একটা আভাস মিলল। না, কোনও বক্তব্যে নয়, স্যোস্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ফেসবুকে। প্রণব মুখোপাধ্যায় নিজে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থন চাইলেও, তৃণমূল নেত্রী যে নিজের অবস্থান থেকে সরে আসেননি, তার প্রমাণ সোশ্যাল নেটওয়ার্কে এই পোস্ট।
রাষ্টপতি পদে প্রার্থী নির্বাচন ইস্যুকে ঘিরে জাতীয় রাজনীতিতে বেশ কিছুটা কোণঠাসা হয়ে পড়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনেকেই মনে করছিলেন, রাজ্যের ভবিষ্যতের কথা ভেবে শেষপর্যন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরাসরি সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে সংঘাতের পথ থেকে সরে আসবেন। সমর্থন করবেন প্রণব মুখোপাধ্যায়কে। কিন্তু, জল্পনায় জল ঢেলেছে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য। শুক্রবার সমর্থন চেয়ে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের অনুরোধের পরও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ পি জে আবদুল কালামকে সমর্থনের কথা বলেছেন। সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রী অনুরোধ জানিয়েছেন। অনুরোধে তিনি বলেছেন মানুষই যেন তাদের নির্বাচিত বিধায়ক এবং সাংসদদের কালামকে ভোট দেওয়ার কথা বলেন। 
দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বুঝতে পারছেন, প্রণব মুখোপাধ্যায়ই দেশের পরবর্তী রাষ্ট্রপতি। কিন্তু, তবুও নিজের লড়াই ছাড়তে নারাজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই কারণেই এই ইস্যুতে জনমত তৈরি করতে সোশ্যাল নেটওয়ার্কের শরণাপন্ন হয়েছেন তিনি। তিনি লিখেছেন, "ডঃ এ পি জে আবদুল কালাম ভারতের কৃতী সন্তান। দেশবাসীর কাছে তিনি অনুপ্রেরণা। আমরা ছোট দল। অন্য বড় দলের মতো আমাদের সঙ্গতি নেই। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী হিসাবে তৃণমূল কংগ্রেস ডঃ কালামকে সমর্থন করছে। ইতিমধ্যেই অন্য রাজনৈতিক দলগুলির কাছে আমি সমর্থনের আহ্বান জানিয়েছি। অন্য নাগরিকদের মতো আমি শুধু আবেদনে সাড়া দেওয়ার অনুরোধ করতে পারি।"
শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, শনিবার তিনি যা বলার বলবেন। যদিও সাংবাদিক বৈঠক ডেকে শনিবার কিছুই বলেননি। শুধু মহাকরণ ছাড়ার আগে বলে গেলেন, ফেসবুকই এবার তাঁর হাতিয়ার।



First Published: Saturday, June 16, 2012 - 23:10


comments powered by Disqus