প্রথা ভেঙেই প্রধানমন্ত্রীর অভ্যর্থনা এড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী

Last Updated: Saturday, June 2, 2012 - 10:55

দিল্লিতে দরবার করেও কেন্দ্রের `বিশেষ আর্থিক সাহায্য` পাওয়ায় যথেষ্টই ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতে ঘৃতাহুতি দিয়েছে পেট্রোলের মূল্যবৃদ্ধির ইস্যু। শনিবার প্রধানমন্ত্রীর তিন ঘণ্টার কলকাতা সফরে সেই ক্ষোভেরই বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। ৭ রেসকোর্স রোডের বাসিন্দাকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে হাজির হলেন না তিনি। প্রচলিত প্রথা ভেঙে এই পদক্ষেপ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর অনুপস্থিতিতে এদিন বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান রাজ্যপাল এম কে নারয়ণন।
শনিবার সংক্ষিপ্ত এই কলকাতা সফরে দু`টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর এই সফরে কোনও রাজনৈতিক কর্মসূচি নেই। এদিন দুপুর দেড়টায় দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। রেসকোর্স হেলিপ্যাডে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানাতে উপস্থিত হতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে তাঁদের দুজনের মধ্যে সংক্ষিপ্ত কথাও হতে পারে।
শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় তাঁর দমদম বিমানবন্দরে আসেন প্রধানমন্ত্রী। রাজ্যপালের পাশাপাশি সুব্রত মুখোপাধ্যায়, অমিত মিত্র-সহ কয়েকজন মন্ত্রী তাঁকে অভ্যর্থনা জানাতে বিমানবন্দরে হাজির ছিলেন। সকাল ১০টা ৫৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের বোস ইনস্টিটিউটে আসেন। সেখানে ইউনিফায়েড অ্যাকাডেমিক ক্যাম্পাসের শিলান্যাস করেন তিনি। বোস ইনন্সিটিউট থেকে সকাল ১১টা ২০ মিনিট নাগাদ বেরনোর কথা রয়েছে তাঁর। এর পর সকাল পৌনে ১২টায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি জাতীয় বিজ্ঞান কংগ্রেস আয়োজিত শতবর্ষ অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। বেলা ১২টা ৫০ মিনিট নাগাদ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গাড়িতে রেসকোর্স হেলিপ্যাডের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন মনমোহন সিং। তাঁর সেখানে পৌঁছনোর কথা বেলা ১টা ০৫ মিনিট। দুপুর দেড়টায় বিমানে প্রধানমন্ত্রী দিল্লি ফিরে যাবেন বলে জানা গিয়েছে।



First Published: Saturday, June 2, 2012 - 10:55


comments powered by Disqus