সংখ্যালঘু উন্নয়নে তিমিরেই রাজ্য, মুখ্যমন্ত্রীর দাবি উড়িয়ে সংখ্যালঘু মন্ত্রী

মুখ্যমন্ত্রীর দাবি সাচার কমিটির সুপারিশের ৯৯ শতাংশ কাজই হয়ে গিয়েছে রাজ্যে। কিন্তু, বাস্তবটা কী? কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রীই বলছেন, সংখ্যালঘুদের অবস্থার কোনও উন্নতিই হয়নি এরাজ্যে। ইমামভাতা নিয়ে রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তেরও সমালোচনা করেছেন তিনি। রেল প্রতিমন্ত্রী অধীর চৌধুরীর অভিয়োগ, সংখ্যালঘু মহিলাদের জন্য কেন্দ্রের পাঠানো টাকায় ভাগ বসাচ্ছে রাজ্য।

Updated: Feb 11, 2013, 06:56 PM IST

মুখ্যমন্ত্রীর দাবি সাচার কমিটির সুপারিশের ৯৯ শতাংশ কাজই হয়ে গিয়েছে রাজ্যে। কিন্তু, বাস্তবটা কী? কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রীই বলছেন, সংখ্যালঘুদের অবস্থার কোনও উন্নতিই হয়নি এরাজ্যে। ইমামভাতা নিয়ে রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তেরও সমালোচনা করেছেন তিনি। রেল প্রতিমন্ত্রী অধীর চৌধুরীর অভিয়োগ, সংখ্যালঘু মহিলাদের জন্য কেন্দ্রের পাঠানো টাকায় ভাগ বসাচ্ছে রাজ্য।
কে রহমান খানের বক্তব্য, সংখ্যালঘুরা যে আঁধারে ছিলেন, থেকে গিয়েছেন সেই আঁধারেই। তাঁর অভিযোগ, রাজ্যে সংখ্যালঘুদের অবস্থার কোনও পরিবর্তনই হয়নি। কেন্দ্রীয় সরকারের টাকাও সংখ্যালঘুদের কাছে সঠিকভাবে পৌঁছচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। একই সঙ্গে ইমাম ভাতা নিয়েও রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রী।
ইতিমধ্যেই মুসলিম ধর্মীয় নেতারা বলছেন, ৯৯ শতাংশের হিসাব দিন মুখ্যমন্ত্রী।
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অধীর চৌধুরীর অভিযোগ, মুসলিম মহিলাদের সাইকেলের টাকা দিচ্ছে কেন্দ্র। সেখানেও ভাগ বসাচ্ছে রাজ্য।
হাইকোর্টে ইমামভাতা সংক্রান্ত মামলায় এখনও হলফনামা পেশ করেনি রাজ্য সরকার। আর এতেই উষ্মা প্রকাশ করেছেন বিচারপতি। আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে রাজ্যকে হলফনামা পেশের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।