মমতার জমানার রেল আর অধীরের রেলের ফারাক

Last Updated: Wednesday, November 28, 2012 - 19:05

রেলের অনুষ্ঠানের খরচ ঘিরে রীতিমতো চাঞ্চল্যকর তথ্য। মমতা বন্দোপাধ্যায়ের জমানায় রেলের একটি অনুষ্ঠানের জন্য খরচ হত প্রায় ৬ লক্ষ টাকা। সোমবার অধীর চৌধুরীর রেলের অনুষ্ঠানের খরচ লাখ টাকার কম। কেমন করে সম্ভব? তা নিয়েই এই বিশেষ প্রতিবেদন।
পুরানো সেই দিনের কথা। রেলের চোখ ধাঁধানো জাঁকজমক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে ডাক পড়ত নামীদামী শিল্পীদেরও। দু চারটে গান গাওয়ার জন্য কেউ পেতেন ৬০ হাজার কেউ বা তারও বেশি। এছাড়া ছিল পাতা ভর্তি বিজ্ঞাপন। একই দিনে তিনটে অনুষ্ঠান হলে প্রত্যেকটার জন্য আলাদা আলাদা বিজ্ঞাপন।
 
রেল দফতরের প্রতিমন্ত্রী হওয়ার পর সোমবার  রেলের তিনটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন অধীর চৌধুরী। সাদামাটা মঞ্চ, জাঁকজমক উধাও। পাতার এক কোণায় ছোট্ট বিজ্ঞাপন। দুটো অনুষ্ঠানের মধ্যে খরচের ফারাক কত---
 
রেলের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী 
 

আগের খরচ
মঞ্চ
- লক্ষাধিক টাকা।
আলো
- ৫০ হাজার টাকা।
রিফ্রেশমেন্ট - প্রায় ৫০ হাজার টাকা।
শিল্পীদের পারিশ্রমিক
- প্রায় লক্ষাধিক টাকা। বিজ্ঞাপন বাবদ - তিন থেকে সাড়ে তিন লাখ টাকা।
মোট খরচ প্রায় ৬ লাখ টাকা।
 
বর্তমানে রেলের অনুষ্ঠানের খরচ কত?
মঞ্চ - ৪০ হাজার টাকা।
আলো - ৩০ হাজার টাকা।
বিজ্ঞাপন
-  ৫০ হাজার টাকা।
 
মোট এক লাখ টাকার কাছাকাছি। অর্থাত্‍ অনুষ্ঠান পিছু খরচ বাঁচল প্রায় পাঁচ লাখ টাকা। রেলের ভাঁড়ারের অবস্থা নিদারুণ খারাপ। আদৌ প্রকল্পগুলো বাস্তবায়িত করা যাবে কিনা তা নিয়ে মাথায় হাত রেলমন্ত্রীর। কেন এইভাবে শূন্য হয়ে গেল রেলের ভাঁড়ার? অপরিকল্পিত ব্যয়ই কি এর অন্যতম কারণ? মন্ত্রী বদলের পর কিন্তু এই প্রশ্নগুলি জোরালোভাবে উঠতে শুরু করেছে। শুধু অনুষ্ঠানের জাঁকজমক করে লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করাই নয় বিভিন্ন বুদ্ধিজীবীদের কমিটি করেও খরচ করা হয়েছে প্রচুর টাকা। আদৌ এই কমিটি গড়ে এতো টাকা খরচ করার কোনও কারণ ছিল কিনা তাও খতিয়ে দেখা শুরু হয়েছে।   



First Published: Wednesday, November 28, 2012 - 19:06


comments powered by Disqus