রবীন্দ্রভারতীতে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, অভিযোগ টিএমসিপির বিরুদ্ধে

রবীন্দ্রভারতীতে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, অভিযোগ টিএমসিপির বিরুদ্ধে

রবীন্দ্রভারতীতে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, অভিযোগ টিএমসিপির বিরুদ্ধেতৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জের। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, মারধর। পরীক্ষা দিয়ে ফেরার সময় বাসস্ট্যান্ড থেকে টানতে টানতে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় ইউনিয়ন রুমে। ঘণ্টা ছয়েক আটকে রেখে চলে নির্যাতন। ছাত্র-ছাত্রীদের অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এধরনের ঘটনা প্রায়ই ঘটছে।শিক্ষাঙ্গনের যে ছবিটা ছাত্রীটির মনে আঁকা ছিল, সোমবার দুপুরের ঘটনা তাকে আমূল বদলে দিয়েছে । সৌজন্যে শাসক দলের ছাত্র সংগঠন।

কী ঘটেছিল সোমবার?

উত্তর ২৪ পরগনার প্রান্তিক গ্রাম থেকে এসে বিশ্ববিদ্যালয়ের গার্লস হস্টেলে থাকা। তৃণমূলের দখলে থাকা ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদকের আত্মীয় এম এ দ্বিতীয় বর্ষের এই ছাত্রী। আনোয়ার খান গোষ্ঠীর লোক বলে পরিচিত ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক । উত্তর কলকাতার তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারের সঙ্গে কাউন্সিলর তথা তৃণমূল নেতা শান্তনু সেনের বিরোধ।

অভিযোগ, ছাত্রীটি যখন পরীক্ষা দিয়ে ফিরছিল, শান্তনু সেন গোষ্ঠীর বিশ্বজিত্ দে ওরফে বাপ্পা ১০-১২ জন সঙ্গী নিয়ে বাসস্ট্যান্ডে ছাত্রীকে ধাওয়া করে। বাসস্ট্যান্ড থেকে টানতে টানতে ইউনিয়ন রুমে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রায় ছঘণ্টা আটকে  রেখে চলে মারধর। চিৎকার করলে গলা টিপে ধরে মৌলি নামের একটি মেয়ে। তারপরই ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করা হয় বলে অভিযোগ।

বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে এমন ঘটনা প্রায়ই ঘটছে। বলছেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সমর্থকেরাই।
 
এই ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বিরোধীরা।
 

First Published: Tuesday, July 30, 2013, 07:42


comments powered by Disqus